নতুন পদ হিসেবে প্লেটে আসছে অক্টোপাস থেকে নিরামিষ স্টেক | অন্বেষণ | DW | 17.03.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

নতুন পদ হিসেবে প্লেটে আসছে অক্টোপাস থেকে নিরামিষ স্টেক

যুগের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের খাদ্যাভাসেরও পরিবর্তন ঘটছে৷ সামুদ্রিক জীব থেকে শুরু করে নিরামিষ মাংস ভবিষ্যতে আরো জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারে৷ এমনই কিছু প্রবণতার দিকে নজর দেওয়া যাক৷

Feuerqualleহাজার বছরেরও বেশি সময় ধরে এশিয়া মহাদেশে জনপ্রিয় খাদ্য জেলিফিশ

হাজার বছরেরও বেশি সময় ধরে এশিয়া মহাদেশে জনপ্রিয় খাদ্য জেলিফিশ

হাজার বছরেরও বেশি সময় ধরে এশিয়া মহাদেশে খানদানি খাদ্য হিসেবে জেলিফিশ খাওয়া হয়৷ এবার হয়তো ইউরোপেও এমন পদ পরিবেশন করা হবে৷ ইটালির রাঁধুনি জেনারো এস্পোসিতো ইউরোপের অন্যতম প্রথম তারকা শেফ হিসেবে জেলিফিশ নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন৷

যারা পরীক্ষামূলক এই পদ চেখে দেখছেন, তাঁদের পক্ষে থলথলে এই প্রাণী খাওয়া সহজ নন৷ জেনারো অবশ্য মনে করিয়ে দিলেন, ‘‘প্রথমত টেনট্যাকেল বা কাঁটার মতো অংশ ফেলে দিতে হয়, কারণ সেগুলি বিপজ্জনক৷ ত্বকে বিদ্যুতের মতো শক দিতে পারে৷ জেলিফিশের কোনো তুলনা নেই৷ মিনারেল সমৃদ্ধ ও পুষ্টিতে ভরপুর৷''

জেলিফিশ সত্যি খাদ্য হিসেবে অভিনব৷ নানা রকম মিনারেল ছাড়াও এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিকর উপাদানও রয়েছে৷ কে জানে, হয়তো অদূর ভবিষ্যতে ইউরোপে জেলিফিশের কদর বেড়ে যাবে৷

ভিডিও দেখুন 05:01

জেলিফিশ থেকে ভিগান স্টেক, হরেক পদের চাহিদা বাড়ছে

খাদ্যের ক্ষেত্রে নতুন প্রবণতার আরো উদাহরণ রয়েছে৷ যেমন সুইজারল্যান্ডে চিজের সম্পূর্ণ ভিগান বিকল্পের চল বাড়ছে৷ এমনকি গরম চিজের এই পদেও কোনো দুধ নেই৷ কাজুই এমন ভিগান খাদ্যপণ্যের ভিত্তি৷

‘নিউ রুটস' নামের কোম্পানি প্রতি মাসে প্রায় চিজের দেড় লাখ ভিগান বিকল্প উৎপাদন করে৷ ২০১৫ সালে ফ্রেডি হুনৎসিকার মাত্র ২১ বছর বয়সে নিজের এই কোম্পানি গড়ে তোলেন৷ তাঁর মতে, এটাই ভবিষ্যৎ৷ মানুষকে মনোভাব বদলাতে হবে৷ সেটাই মানুষের বিবর্তনের নিয়ম৷

ব্যায়ামের সময়ে সব পেশির প্রতিই মনোযোগ দেওয়া জরুরি

কোনো প্রাণীর দুধ না থাকায় ভিগান কামেমবেয়ারকে তিনি চিজ বলতে পারেন না৷ কিন্তু আসল চিজের তুলনায় সেই পণ্য উৎপাদনে কার্বন নির্গমনের মাত্রা অনেক কম৷ হুনৎসিকার বলেন, ‘‘কার্বন নির্গমনের মাপকাঠিতে কোনো কাঁচামালের উৎপাদন প্রক্রিয়া অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়৷ অত্যন্ত উর্বর জমিতে আমাদের কাজুর ফলন হয়, বেশি পানি দিতে হয় না৷ একমাত্র পরিবহণই নেতিবাচক বিষয়, যদিও সেটি মোট কার্বন ফুটপ্রিন্টের মাত্র পাঁচ শতাংশের জন্য দায়ী৷ অর্থাৎ মোটেই খুব বেশি নয়৷''

সুপার রেকগনাইজারদের ক্ষমতার সীমা এখনো স্পষ্ট নয়

দেশের অন্যান্য প্রান্তেও ঐতিহ্যগত চিজ উৎপাদন প্রক্রিয়া প্রশ্নের মুখে পড়ছে৷ জেনিভা শহরে ২০১৭ সালে ‘ক্রেমারি ভেগান' নামের ভিগান চিজের অন্যতম প্রথম রেস্তোরাঁ খুলেছিল৷ সেখানে দুধের বিকল্প দিয়ে তৈরি খাদ্য পরিবেশন করা হয়৷ ছোট পারিবারিক এই কোম্পানিও কাজুর ভিত্তিতেই খাদ্যপণ্য তৈরি করে৷ রেস্তোরাঁর প্রতিষ্ঠাতা মালেনা আসাম বলেন, ‘‘আজকাল আরো বেশি মানুষের দুগ্ধজাত পণ্য সহ্য হচ্ছে না৷ বিশেষ করে ‘ফ্লেক্সিটেরিয়েন' ও সর্বভূকরা কিছু পরিবর্তন করতে ও উন্নতি করতে চান বটে, কিন্তু নিজেরা বড় পদক্ষেপ নিতে এখনো প্রস্তুত নন৷''

খাদ্যের নতুন প্রবণতার ক্ষেত্রে প্রযুক্তির প্রয়োগও কম নয়৷ যেমন ভবিষ্যতে থ্রিডি প্রিন্টারে তৈরি তাজা স্টেকও দেখা যাবে৷ বায়ো-ইঞ্জিনিয়ার জুসেপে শনটি সেটি আবিষ্কার করেছেন৷ তিনি স্পেনে ভেষজ প্রোটিন দিয়ে প্রথম প্রিন্টেড স্টেক সৃষ্টি করেছেন৷ সেই নিরামিষ মাংসে কামড় দিলে আসল স্টেক বলে মনে হবে৷ জুসেপে মনে করেন, ‘‘বাজারে অনেক বিকল্প রয়েছে৷ তবে অনেক নকল রয়েছে, যেগুলি প্রসেসড মাংসের আদলে তৈরি৷ হ্যামবার্গার, মিট বল বা সসেজ হিসেবে সেগুলি পাওয়া যায়৷ যেটা এখনো পাওয়া যায় না, সেটা হলো গরু বা শুকরের মাংসের স্টেকের হুবহু বিকল্প৷ সেই স্বাদ একেবারেই অনবদ্য৷''

নামিবিয়ায় প্রাণিজগতের সঙ্গে সংঘাত এড়ানোর উদ্যোগ

এই ‘স্টেক' আসলে কড়াইশুটি, সামুদ্রিক শৈবাল, চালের পাউডার দিয়ে তৈরি৷ বিটের রস সেটিতে লাল রং যোগ করে৷ থ্রিডি প্রিন্টার সেই মণ্ডকে সুক্ষ্ম তন্তুর রূপ দেয়৷ স্টেক প্রিন্ট করতে ২০ থেকে ৪০ মিনিট সময় লাগে৷

স্পেনের উত্তরে বিখ্যাত ‘এল সান্তুয়ারি' রেস্তোরাঁয় প্রধান রাঁধুনী জুসেপ সানিটখাস থ্রিডি প্রিন্টারে তৈরি স্টেকের সঙ্গে খাঁটি মাংসের তুলনা করেন৷ জুসেপ দুটি খাদ্য তুলে ধরে বলেন, ‘‘একটি মাংসের সাধারণ টুকরো৷ অন্যটি থ্রিডি প্রিন্টারে সৃষ্টি করা হয়েছে৷ ভাবাই যায় না যে এটা নিরামিষ পদ৷ একেবারে মাংসের মতো গঠন৷''

বার্সেলোনায় শিশুদের নিরাপদে স্কুলে পাঠাতে অভিনব ব্যবস্থা

প্রিন্টারে তৈরি নিরামিষ স্টেক এখনো প্রোটোটাইপ পর্যায়ে রয়েছে৷ তবে অদূর ভবিষ্যতে বড়ো আকারে এমন পদ তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে৷ বায়ো ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে জুসেপে স্কন্টি বলেন, ‘‘রেস্তোরাঁয় মাংসের যে সব বিকল্প পণ্য পাওয়া যায়, তার তুলনায় অনেক ভালো খাবার আমরা শীঘ্রই পরিবেশন করব৷''

নতুন বছরেই ‘ভিগান স্টেক' বাস্তব হয়ে উঠতে পারে৷

মেগিন লেই/এসবি

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়