কাশ্মীর ইস্যুতে বিজেপির ‘বাঙালি ছক’ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 10.08.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

কাশ্মীর ইস্যুতে বিজেপির ‘বাঙালি ছক’

কাশ্মীরের ইস্যুকে হাতিয়ার করে পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক প্রচার চালাতে চায় বিজেপি৷ এ জন্য জনসঙ্ঘের নেতা শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়কে সামনে আনছে তারা৷ একই সঙ্গে বাড়ানো হয়েছে সদস্য সংগ্রহ অভিযানের মেয়াদ৷

ভারতীয় জনসঙ্ঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ বাংলার বাঘ আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের ছেলে

ভারতীয় জনসঙ্ঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ বাংলার বাঘ আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের ছেলে

২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে নজরকাড়া ফল করার পর পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করেছে বিজেপি৷ জয় শ্রীরাম স্লোগানকে সামনে রেখে ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে আক্রমণাত্মক প্রচার৷ এ বার তার সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে কাশ্মীরকে কেন্দ্র করে তৈরি হওয়া উগ্র জাতীয়তাবাদ৷ এর পরিপ্রেক্ষিতে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির প্রচারের একদিকে রয়েছে বাঙালি আবেগ এবং অন্যদিকে সংগঠনকে মজবুত করে তোলার উদ্যোগ৷

কাশ্মীরের বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা রদ করার পর সবচেয়ে বেশি যে নামটি আলোচিত হচ্ছে, তা হল শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়৷  ভারতীয় জনসঙ্ঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রসাদ বাংলার বাঘ আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের পুত্র৷  কাশ্মীরের জন্য বিশেষ মর্যাদা তিনি মেনে নিতে পারেননি৷ ১৯৫৩ সালে অনুমতি ছাড়া কাশ্মীরের প্রবেশ করে তাঁকে গ্রেপ্তার হতে হয়৷ বন্দি অবস্থায় কিছু দিনের মধ্যে মারা যান৷ বিজেপির সব স্তরের নেতাদের বক্তব্য, নরেন্দ্র মোদি সরকার সাত দশক পর শ্যামাপ্রসাদেরই অপূর্ণ ইচ্ছাকে পূরণ করেছে৷ 

বিজেপির জয় শ্রীরাম স্লোগানের মোকাবিলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জয় বাংলা স্লোগান তুলেছেন ধর্মীয় মেরুকরণ রোখার লক্ষ্যে৷  তার পাল্টা এ বার বিজেপি বাঙালি আবেগকে উস্কে দিতে হাতিয়ার করছে শ্যামাপ্রসাদকে৷  পণ্ডিত শ্যামাপ্রসাদ কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য ছিলেন৷  একজন বড় মাপের রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব তথা প্রথম কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সদস্য হলেও পশ্চিমবঙ্গে তিনি কখনই সেভাবে আলোচিত হননি

গেরুয়া শিবির বিধানসভা নির্বাচনের আগে পশ্চিমবঙ্গের বড় শহরগুলিতে শ্যামাপ্রসাদের উপর আলোচনাসভার আয়োজন করবে৷ শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জী রিসার্চ ফাউন্ডেশন-এর অনির্বাণ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, প্রয়াত নেতার স্মৃতি বাঙালির মধ্যে জাগিয়ে তুলতে চান তারা৷  সেই লক্ষ্যেই আয়োজন করা হবে আলোচনাসভার৷ কাশ্মীরের সিদ্ধান্ত ঘোষণার দিনই দেখা গিয়েছে, বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা উল্লাসে মেতেছেন৷ কলকাতার রাস্তায় জাতীয় পতাকার নীচে ঠাঁই পেয়েছে শ্যামাপ্রসাদের ছবি৷ 

অডিও শুনুন 02:09

‘এর মাধ্যমে বাঙালিদের বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে’

পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস কাশ্মীর সংক্রান্ত বিলের বিরোধিতা করেছে৷ সংসদে বিলের বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, কাশ্মীরের নেতা-নেত্রীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে৷  তাঁদের সঙ্গে আলোচনা না করে একতরফা ভাবে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে কেন্দ্র৷ গণতান্ত্রিক পথে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে পদক্ষেপ করা যেত৷  বিজেপি এই অবস্থানকে দেশবিরোধী তকমা দিয়ে জাতীয়তাবাদী প্রচারকে তুঙ্গে নিয়ে যেতে চায়৷

কাশ্মীর সংক্রান্ত ঘোষণার আগে থেকেই রাজ্যে বিজেপির সদস্য সংগ্রহ অভিযান চলছে৷  জেলায় জেলায় শিবির করে সদস্য সংগ্রহ করছেন বিজেপি নেতারা৷ ৩৭০ ধারা বিলোপের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর সদস্য সংগ্রহের মাত্রা বেড়েছে বলে দাবি বিজেপি নেতৃত্বের৷  আগে ঠিক ছিল, ১১ আগস্ট পর্যন্ত চলবে এই অভিযান৷ পরবর্তীতে অভিযান এর মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে ২০ আগস্ট পর্যন্ত৷ এই অভিযানকে সামনে রেখে কাশ্মীর সিদ্ধান্তের পক্ষে প্রচার চালাচ্ছে বিজেপি৷ 

বিরোধীরা এই মুহূর্তে অনেকটাই ছত্রভঙ্গ৷ প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা বিজেপির পদক্ষেপকে সমর্থন করেছেন৷ পশ্চিমবঙ্গে বামেরা ক্রমশ পিছু হঠছে৷  এই পরিস্থিতি বিজেপির বিস্তারের পক্ষে অনুকূল৷ তাই সদস্য সংগ্রহের এটাই উপযুক্ত সময় বলে মনে করছে তারা৷ এরই মধ্যে কাশ্মীরের হাওয়া উঠে যাওয়ায় সহজেই অন্য দলের নেতা-কর্মীদের কাছে বার্তা দিতে পারছে নরেন্দ্র মোদির দল৷

বিজেপির এই জোড়া কৌশল সমাজ ও রাজনীতিতে প্রভাব ফেলছে৷ বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্বের অধ্যাপক সৈয়দ আব্দুল হাফিজ মৈনুদ্দিনের বক্তব্য, ‘‘বিজেপি বরাবরই শ্যা্মাপ্রসাদকে তাদের প্রচারে রাখে৷  তাঁর মতাদর্শ অনুসরণ করে৷  কাশ্মীরের সিদ্ধান্তের ফলে তারা শ্যামাপ্রসাদকে একেবারে সামনে নিয়ে এসেছে৷  এর মাধ্যমে বাঙালিদের বার্তা দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে ৷  এ বারের নির্বাচনে মেরুকরণ হয়েছে৷ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে নিশানা করা হয়েছে৷ যে কোনো উপায়ে এ সব করার চেষ্টা হচ্ছে৷  কাশ্মীর তথা শ্যামাপ্রসাদ তাতে নতুন মাত্রা যোগ করেছে''৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন