মোবাইল সেট ভিন্ন হোক, চার্জার একই | বিজ্ঞান পরিবেশ | DW | 22.08.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

মোবাইল সেট ভিন্ন হোক, চার্জার একই

একই মোবাইল চার্জার চলবে গোটা ইউরোপে৷ এই পরিকল্পনা এখন বাস্তবায়ন হওয়ার পথে৷ আগামী বছরই আসছে সেই চার্জার৷

default

ভবিষ্যতে এমন আর থাকবে না

আপনি যত দূরেই যান, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার উপায় কি আর এখন আছে ? আর সে কাজটি করে দেয় মোবাইল ফোন৷ কিন্তু মোবাইল সেটের সঙ্গে যে লেজ হয়ে একটা চার্জারও সঙ্গী হয়৷ কারণ তা না থাকলে তো সেটটিও হয়ে পড়তে পারে নিশ্চল৷ মোবাইলের চার্জার নিতে যাদের মনে থাকে না, সেই ভুলোমনোদের জন্য সুখবর নিয়ে এসেছে ইউরোপীয় কমিশন৷ তা হলো, এখন ভুল করে চার্জার ফেলে গেলেও সমস্যা নেই৷ কাজ চালানো যাবে যে কারো চার্জার দিয়েই৷

ইউরোপীয় কমিশনের মুখপাত্র ডেনিস অ্যাবোট গত সপ্তাহেই জানালেন, সব মোবাইল সেটের জন্য এক ধরনের চার্জার আগামী বছরের জানুয়ারিতেই আসছে ইউরোপের বাজারে৷ এই জন্য নোকিয়া, সনি এরিকসন, স্যামসং, অ্যাপলসহ বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে আলোচনা হয়েছে৷ এবং তারা রাজিও হয়েছেন৷ বলেছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৭ সদস্য রাষ্ট্রের জন্য এক ধরনের চার্জার তৈরি করা হবে৷

ভুলোমনোদের সুবিধা দিতেই ইউরোপীয় কমিশনের এই সিদ্ধান্ত, কেউ যদি এটা ভাবেন তবে ভুল করবেন৷ এর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে, বর্জ্য কমানো৷ কারন বর্জ্যের ভারে ভারক্রান্ত এখন পুরো পৃথিবী৷ তা একটু লাঘব করতেই এই চেষ্টা৷ বিষয়টা এমন, ধরুন, আপনার পরিবারে সদস্য পাঁচজন৷ একেক জনের পছন্দ একেক রকম৷ তাই কয়েক ধরনের মোবাইল সেটের সঙ্গে সঙ্গে আলাদা আলাদা সেটও আসে৷ এখন নতুন চার্জার এলে একটাতেই হয়ে যাবে সবার কাজ৷ ‘‘এটা বেশ মজার হবে, তাই না'', বললেন অ্যাবোট৷ তিনি একই সঙ্গে তুলে ধরলেন কিছু তথ্য, চার্জার কী পরিমাণ বর্জ্য তৈরি করতে পারে৷

অ্যাবোট বললেন, ‘‘একটি ঘরেই ছয়টি চার্জার দেখেছি আমি৷ প্রতি সেটের জন্য যদি একটা চার্জার থাকে, তবে ইউরোপে প্রতি বছর ৫০ হাজার টন বৈদ্যুতিক বর্জ্য যোগ হয়৷ এখন যদি একই চার্জারে সব ফোনে চার্জ দেওয়া যায়, তবে তা পরিবেশ রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে৷'' আর এতে জ্বালানি খরচও কমে আসবে বলে আশাবাদী অ্যাবোট৷ তবে এর মধ্যে হতাশার খবর তাদের জন্য, যাদের মোবাইল সেটটি পুরনো বা মান্ধাতার আমলের৷ নতুন চার্জারে তাদের কাজ না-ও হতে পারে৷ তাই এই সুবিধা পেতে হলে তাদের কাজ হবে এখন হালফ্যাশনের একটি মোবাইল সেট কিনে নেওয়া৷

প্রতিবেদন: মনিরুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন