মিয়ানমারে সেনা ঘাঁটি দখল বিদ্রোহীদের | বিশ্ব | DW | 27.04.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

মিয়ানমার

মিয়ানমারে সেনা ঘাঁটি দখল বিদ্রোহীদের

থাইল্যান্ড সীমান্তের কাছে একটি সেনা ঘাঁটি দখল করলো সখ্যালঘু ক্যারেন বিদ্রোহীরা। সংঘর্ষে মৃত বহু।

মিয়ানমারে ক্যারেন বিদ্রোহীরা।

মিয়ানমারে ক্যারেন বিদ্রোহীরা।

মিয়ানমারের সঙ্গে থাইল্যান্ডের সীমানার কাছে একটি সেনা ঘাঁটি দখল করলো ক্যারেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন(কেএনইউ) বিদ্রোহীরা।

কেএনইউ-এর পররাষ্ট্র বিষয়ক প্রধান তাও নি জানিয়েছেন, ''আমাদের বাহিনী সেনা ঘাঁটি দখল করে নিয়েছে।''

মিয়ানমার ও থাইল্যান্ডের সীমানা দিয়ে বয়ে চলা সালউইন নদীর কাছে এই ঘাঁটি ছিল। সেটাই আক্রমণ করে বিদ্রোহীরা। গ্রামবাসীরাও প্রচুর গোলাগুলির শব্দ পেয়েছেন।

তাও নি জানিয়েছেন, কতজন মারা গেছেন, কতজন আহত সেই তথ্য তারা এখন সংগ্রহ করছেন।

কারা এই বিদ্রোহী

ক্যারেন ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মি হলো কেএনইউ-র সামরিক বাহিনী। ১৯৪৯ সাল থেকে তারা মিয়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করছে। তারা ক্যারেন জাতিগত সংখ্যালঘুদের জন্য স্বাধীন রাষ্ট্র চায়।

গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারে সেনা শাসন চলছে। সু চি সহ বহু রাজনৈতিক নেতাকে আটক করা হয়েছে। সেনা শাসনের বিরুদ্ধে প্রায় প্রতিদিনই বিক্ষোভ হচ্ছে। সেনা ও পুলিশ তা কড়াহাতে দমন করছে। প্রায় সাড়ে সাতশ বিক্ষোভকারী মারা গেছেন। প্রচুর বিক্ষোভকারীকে জেলে আটকে রাখা হয়েছে।

পশ্চিমা দেশগুলি মিয়ানমারে সেনা শাসনের বিরোধী। তারা অবিলম্বে গণতন্ত্র ফেরানোর জন্য সেনার উপর চাপ সৃষ্টি করেছে। তবে তাতে এখনো পর্যন্ত কোনো লাভ হয়নি।

এই অবস্থায় সেনা শাসনের বিরোধীদের কেএনইউ আশ্রয়ও দিচ্ছে।

জিএইচ/এসজি(রয়টার্স, এপি)