ডিএনএ পরীক্ষা পূর্বপুরুষদের ইঙ্গিত দেয় | বিশ্ব | DW | 12.07.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

ডিএনএ পরীক্ষা পূর্বপুরুষদের ইঙ্গিত দেয়

অনেক পরিবারে বংশপঞ্জী রাখা হয়৷ কিন্তু তার দৌড় কয়েক প্রজন্ম পর্যন্ত৷ ডিএনএ পরীক্ষার কল্যাণে যে কেউ তার আদি পূর্বপুরুষদের সম্পর্কে একটা ধারণা পেতে পারে৷ বিশেষত ইউরোপে মানুষ যে অনেক ধারার সংমিশ্রণ, তা আজ স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে৷

‘একটি পাইপের মধ্যে থুথু ছিটিয়ে নিজের অতীত জেনে নিন'৷ এমন ভিডিও বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অনেক কোম্পানি আমাদের পূর্বপুরুষদের নিখুঁতভাবে শনাক্ত করার দাবি করে৷ গ্রাহকরা মুগ্ধ হয়ে যান৷ এমন পরীক্ষার জন্য লক্ষ লক্ষ মানুষ তাঁদের থুতু জমা দিয়েছেন৷ এভাবে বিশাল আকারের এক ডিএনএ তথ্যভাণ্ডার সৃষ্টি হয়েছে৷

প্রাচীনকালের মানুষের জীবাশ্ম থেকে জিনগত তথ্যও সেখানে জমা হচ্ছে৷ গোটা বিশ্বে গবেষকরা সে সব আবিষ্কার ও সংগ্রহ করেছেন৷ যারা বাণিজ্যিকভাবে ডিএনএ পরীক্ষা করান, প্রাচীনকালের মানুষের সঙ্গে তাঁদের জিন তুলনা করা হয়৷ ইউরোপের প্রথম মানুষদের নমুনাও সেই তথ্যভাণ্ডারে রয়েছে৷

যারাই ইউরোপীয় ভূখণ্ডে পা রেখেছে, তারাই আজকের ইউরোপীয়দের জিনের উপর ছাপ রেখেছে৷ প্রায় ৪০,০০০ বছর আগে আফ্রিকা থেকে প্রথম মানুষ ইউরোপে আসে৷ তারা ছিল শিকারি ও সংগ্রহকারী৷ তারপর প্রায় ৭,৫০০ বছর আগে বর্তমান তুরস্কের আনাতোলিয়া অঞ্চল থেকে দ্বিতীয় দল মানুষ ইউরোপে এসে প্রথম চাষবাস শুরু করে৷ জেনেটিক বিশেষজ্ঞরা এর মধ্যে আরও কিছু অভিবাসীদের শনাক্ত করেছেন৷ যেমন ৪,৮০০ বছর আগে স্টেপ অঞ্চলের যাযাবররা ঘোড়া ও গাড়ি নিয়ে আসে৷

আজও ইউরোপীয়দের জিনের মধ্যে তাদের চিহ্ন পাওয়া যায়৷ অন্যভাবে বলতে গেলে প্রত্যেক মানুষের ডিএনএ-এর মধ্যে তার পূর্বপুরুষদের চিহ্ন লুকিয়ে রয়েছে৷ তবে পরীক্ষার ফলাফল সব ক্ষেত্রে নিখুঁত হয় না৷ যেমন যদি জার্মেনিক গোষ্ঠীর চিহ্ন পাওয়া যায়, তার অর্থ আলেমানি, ফ্র্যাংকোনিয়ান, অ্যাংলো-স্যাক্সন অথবা অন্য কোনো গোষ্ঠী হতে পারে, যারা কোনো জার্মেনিক ভাষায় কথা বলতো৷ ‘জার্মেনিক'-এর মতো সংজ্ঞা গ্রাহকদের মনে ধরে৷ তবে বিজ্ঞানীদের মতে, এমন সংজ্ঞা থেকে যথেষ্ট তথ্য পাওয়া যায় না৷ ইয়োহানেস ক্রাউসে বলেন, ‘‘আমার কাছে বিষয়টি অত্যন্ত গোলমেলে মনে হয়, কারণ জার্মেনিক গোষ্ঠীর জেনেটিক গঠন সম্পর্কে আমরা কিছুই জানি না৷ তাদের জেনেটিক সংজ্ঞা কী হতে পারে, তাও আমরা জানি না৷ যেমন জার্মান ও সুইসদেরও সংজ্ঞা পাওয়া যায় না৷ আজ আমরা জানি, সুইজারল্যান্ডের প্রায় ৩০ শতাংশ মানুষের পূর্বপুরুষরা অভিবাসী ছিলেন৷''

তবে জেনেটিক পরীক্ষা থেকে গবেষকরা অবশ্যই কিছু তথ্য পান৷ ইয়োহানেস ক্রাউসে বলেন, ‘‘মানুষ যে আসলে অনেক ধারার সংমিশ্রণ, সেই উপলব্ধি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ শিকড় ইউরোপের বিভিন্ন অংশে ছড়িয়ে রয়েছে, কোনো একটি জাতির মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়৷ ইউরোপে আমরা সবাই যে এক পরিবারের অংশ, সেই বোধ বেশ রোমাঞ্চকর৷''

পূর্বপুরুষদের সন্ধানের ব্যবসা ভালই চলছে৷ ইন্টারনেটে এমন ওয়েবসাইট সেরা ক্লিক পায়৷

রোট/মার্টিনা/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

বিজ্ঞাপন