ডর্টমুন্ডের বাসে হামলাকারীর ১৪ বছরের জেল | বিশ্ব | DW | 27.11.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

ডর্টমুন্ডের বাসে হামলাকারীর ১৪ বছরের জেল

গত বছর বুন্ডেসলিগার দল বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বাসে বোমা হামলায় জড়িত ব্যক্তিকে হত্যাচেষ্টার দায়ে অভিযুক্ত করেছে আদালত৷ চ্যাম্পিয়নস লিগের একটি ম্যাচের আগে দলের খেলোয়াড়দের বহনকারী বাস লক্ষ্য করে এ হামলা চালানো হয়৷

বোমা হমলার ফলে শেয়ার বাজারে দরপতন থেকে লাভ করা যাবে, এমন চিন্তা থেকেই সের্গেই ডব্লিউ নামের২৯ বছর বয়সি রুশ বংশোদ্ভূত এই জার্মান এই হামলা চালান বলেও তদন্তে উঠে এসেছে৷

১১ মাস ধরে চলা মামলার রায়ে হত্যাচেষ্টার ২৮টি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করেছে ডর্টমুন্ডের একটি আদালত৷ গত বছরের ১১ এপ্রিল ক্লাবটির হোম স্টেডিয়াম সিগনাল ইডুনা পার্ক-এর দিকে যাচ্ছিলো৷ এএস মোনাকোর সাথে ম্যাচ ছিল বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের৷

বোমা তৈরি ও বিস্ফোরণের কথা স্বীকার করলেওকারো ক্ষতি করতে চাননি বলে আদালতে দাবি করেন সের্গেই৷ তার দাবি, কেবল ভয়ভীতি ছড়িয়ে শেয়ারবাজারে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের দর কমানোই ছিল তার উদ্দেশ্য৷

তদন্তকারীদের ধারণা, পরিকল্পনামতো কাজ হলে শেয়ার বাজার থেকে পাঁচ লাখ ইউরোর বেশি লাভ করতে পারতেন সের্গেই৷ তবে শেষ পর্যন্ত এ হামলার পরও খুব বেশি প্রভাব পড়েনি পুঁজিবাজারে৷

হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা সের্গেইর যাবজ্জীবন চাইলেও বাদিপক্ষ শুধু বিস্ফোরণের অভিযোগে কয়েক বছরের সাজা কামনা করেন৷

ক্ষতিগ্রস্ত খেলোয়াড়েরা

বিস্ফোরক ও শেয়ারবাজার বিশেষজ্ঞদের পাশাপাশি হামলার সময় বাসে উপস্থিত থাকা বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় ও কোচও মামলায় সাক্ষ্য দিয়েছেন৷ ঘটনার বর্ণনা করতে গিয়ে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন এখন বরুসিয়া ম্যুনশেনগ্লাডবাখের হয়ে খেলা মাটিয়াস গিন্টার৷ সম্প্রতি অবসরে যাওয়া রোমান ভাইডেনফেলার বলেন, ‘‘এই হামলা আমার জীবন বদলে দিয়েছে৷''

ক্লাবের তৎকালীন কোচ টমাস টুখেল হামলার পরের মৌসুমেই দল ছেড়ে দেন৷ তিনি জানান, এই হামলার ঘটনা না ঘটলে কখনোই বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ছাড়তেন না৷

স্প্যানিশ ডিফেন্ডার মার্ক বার্ত্রা এইহামলায় হাতে গুরুতর আঘাত পেয়েছিলেন৷ এর পর চার সপ্তাহ মাঠে নামতে পারেননি তিনি৷ এ বছরের জানুয়ারিতে ক্লাব তো বটেই, জার্মানিই ছেড়ে দিয়ে স্পেনের সেভিয়ায় রেয়াল বেটিসে যোগ দেন বার্ত্রা৷

এডিকে/এসিবি (এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন