জার্মান সরকারের উপর সাইবার হামলা | বিশ্ব | DW | 01.03.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

জার্মান সরকারের উপর সাইবার হামলা

জার্মানিতে মহাজোট সরকার গড়ার প্রস্তুতির মাঝে বার্লিনে জার্মান সরকারের উপর হ্যাকিং হামলার ঘটনা ঘটেছে৷ বিদেশি হ্যাকাররা কতকাল ধরে হামলা চালিয়ে কতটা তথ্য সংগ্রহ করেছে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷

‘এপিটি২৮' রাশিয়ার এক সাইবার গুপ্তচর গোষ্ঠী জার্মানির পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কম্পিউটার ব্যবস্থায় প্রবেশ করতে সক্ষম হয়েছে বলে জানা গেছে৷ গোপন সফটওয়্যার ইনস্টল করে তারা কিছু তথ্যের নাগাল পেয়েছে বলেও সন্দেহ করা হচ্ছে৷ সম্ভবত গত বছরের পুরোটা সময় জুড়েই হামলা চলেছে৷ ডিসেম্বর মাসে নিরাপত্তা সংস্থাগুলির টনক নড়ে৷ শুধু জার্মানি নয়, ইউরোপীয় ইউনিয়নের একাধিক দেশের পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপর এমন হামলা চালানো হয়েছিল বলে সন্দেহ করা হচ্ছে৷ জার্মানির দৈনিক ‘ডি ভেল্ট' এক মার্কিন নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞকে উদ্ধৃত করে এই খবর প্রকাশ করেছে৷ 

ঘটনা ঘটে যাবার পর বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে৷ জার্মান নিরাপত্তা সংস্থাগুলি পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছে বলে সরকার জানিয়েছে৷ জার্মান সংবাদ সংস্থা ডিপিএ প্রথম এই খবর প্রকাশ করে৷ তারপর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে৷ ফেডারেল সরকারের সব কম্পিউটার হ্যাকারদের কবজায় চলে গিয়েছিল কিনা, তা এখনো স্পষ্ট নয়৷ আইভিবিবি নামের এই সরকারি নেটওয়ার্কের অবকাঠামো ব্যবহার করেই প্রায় সব সরকারি কাজকর্ম চলে৷ জার্মান সংসদের দুই কক্ষের অনেক কাজও তার মধ্যে পড়ে৷ জার্মান সংসদের নিম্ন কক্ষ বুন্ডেসটাগ-এর ডিজিটাল কমিটি বৃহস্পতিবার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করবে৷

‘এপিটি২৮' গোষ্ঠীর পেছনে আসলে রুশ সরকারের বিভিন্ন দফতরের সক্রিয় ভূমিকা রয়েছে বলে অনেক তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ মনে করেন৷ তাদের লোকবল, অর্থবল ও ক্ষমতার প্রেক্ষিতে অনেকেই বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত৷ ২০১৫ সালে জার্মান সংসদের কম্পিউটার ব্যবস্থার উপর হামলার পেছনেও একই গোষ্ঠীর হাত ছিল৷

জার্মানি তথা ইউরোপে এমন সাইবার হামলার অন্যতম লক্ষ্য কী? অনেক বিশেষজ্ঞের মতে, রুশ সরকার এই সব দেশের রাশিয়া ও ইউক্রেন সংক্রান্ত নীতি সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করতে আগ্রহী৷ উল্লেখ্য, ইউক্রেন সংকটের জের ধরে রাশিয়া ও ইউরোপের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটেছে৷ রাশিয়ার উপর ইইউ কিছু নিষেধাজ্ঞাও চাপিয়েছে৷

এসবি/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন