জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু: মার্কিন বিচার ব্যবস্থার পরিবর্তন আবশ্যক | বিশ্ব | DW | 10.03.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সংবাদভাষ্য

জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু: মার্কিন বিচার ব্যবস্থার পরিবর্তন আবশ্যক

জর্জ ফ্লয়েডের হত্যাকারী হিসেবে অভিযুক্ত সাবেক মিনিয়াপোলিস পুলিশ অফিসার ডেরেক শওভিনের বিচার নিঃসন্দেহে মার্কিন ইতিহাসে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা৷ এমনটাই মনে করেন ডয়চে ভেলের কার্লা ব্লাইকার৷

তার মতে, ডেরেক শওভিন শাস্তি পেলে এ ধরনের অপরাধীদের জন্য তা হবে একটি শক্তিশালী বার্তা৷

২০২০ সালের ২৫ মে পুলিশ অফিসার ডেরেক শওভিন মাটিতে ফেলে হাঁটু দিয়ে জর্জ ফ্লয়েডের গলা চেপে ধরেছিল প্রায় নয় মিনিট ধরে৷ সেখানেই ফ্লয়েডের মৃত্যু হয়৷ পরে জানা যায়,মিনিয়াপোলিসে ১৯ বছর ধরে কর্মরত এই পুলিশ অফিসার নানা অপকর্ম করেছেন এবং তার বিরুদ্ধে ১৭টি অভিযোগ আনা হয়েছিল বিভিন্ন সময়ে৷ 

অথচ জর্জ ফ্লয়েডের ঘটনার আগে সেসব অপকর্মের জন্য কোন শাস্তি হয়নি শওভিনের৷ কেবল সতর্ক করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে৷ জর্জ ফ্লয়েডকে হত্যার অভিযোগ প্রমাণিত হলে ৪৪ বছর বয়সি শওভিনের সর্বোচ্চ ৪০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে৷ শওভিনের শাস্তি হলে একটা পরিষ্কার বার্তা দেয়া হবে, তাহল পুলিশ ব্যাজ পরে আইনের ঊর্ধ্বে যাওয়া যায় না এবং এই বার্তাটা ভীষণ জরুরি৷

একজন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসারের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ মার্কিনীদের জীবন-মরণ নির্ভর করছে, এই বিষয়টি পুরো দেশের মানুষের মনে দুঃখ এবং ক্ষোভের জন্ম দেয়৷ সেই ক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়ে পুরো বিশ্বে৷

‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ এত ব্যাপকতা লাভ না করলে হয়ত এবারও শওভিনকে হুঁশিয়ার করেই ছেড়ে দেয়া হত৷ এই ঘটনা মানুষের মনে এতটাই দাগ কেটেছে যে, যে গ্রোসারি স্টোরের সামনে ফ্লয়েডের মৃত্যু হয়েছিল, সেখানে এখনো কেউ ফুল, মোমবাতি দিয়ে স্মরণ করেন তাকে৷

মার্কিন রাজনীতিবিদরা এরই মধ্যে পুলিশ বিভাগকে ব্যাপক সংস্কারের পরিকল্পনার কাজে হাত দিয়েছেন৷ গত সপ্তাহে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে এ সংক্রান্ত একটি বিল অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হয়েছে৷ যদিও এই বিলটি সেনেটে পাস হবে কিনা সে নিয়ে এখনো সন্দেহ রয়েছে৷

মনে হতে পারে একজন পুলিশ অফিসারকে শাস্তি দিলে কী হবে? শওভিনকে শাস্তি দিলে এ ধরনের অপরাধ যেসব পুলিশ অফিসার করে থাকেন তাদের কাছে একটি শক্তিশালী বার্তা পৌঁছাবে, ন্যায় বিচারের পথে এটা হবে এটা মাইলফলক৷ আর যদি শওভিন নির্দোষ প্রমাণিত হয় বা অল্প সাজা পায়, তাহলে যুক্তরাষ্ট্রের ন্যায় বিচার প্রত্যাশীদের জন্য তা হবে সবচেয়ে বড় আঘাত৷

উল্লেখ্য, সোমবার থেকে মিনেসোটা আদালতে শুরু হয়েছে পুলিশ অফিসার ডেরেক শওভিনের বিচার৷ আদালতের চারপাশে জাতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর দুই হাজার সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে৷

কার্লা ব্লাইকার/এপিবি

গতবছর জুনের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়