ও্যজিল ইস্যুতে ভুলের কথা স্বীকার করলেন ডিএফবি প্রধান | বিশ্ব | DW | 26.07.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

ও্যজিল ইস্যুতে ভুলের কথা স্বীকার করলেন ডিএফবি প্রধান

জার্মান ফুটবল ফেডারেশন, ডিএফবির প্রধান রাইনহার্ড গ্রিন্ডেল তাঁর ও ফেডারেশনের বিরুদ্ধে ওঠা বর্ণবাদের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন৷ তবে ও্যজিল ইস্যু সামলাতে তিনি ভুল করেছেন বলে স্বীকার করেছেন৷

বৃহস্পতিবার ফেডারেশন থেকে প্রকাশ করা এক বিবৃতিতে গ্রিন্ডেল বলেন, তাঁর উপর ব্যক্তিগত আক্রমণে তিনি ‘ব্যথিত'৷

গত মে মাসে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়িপ এর্দোয়ানের সঙ্গে জার্মানির সাবেক ফুটবলার মেসুট ও্যজিলের বৈঠকের ছবি প্রকাশিত হওয়ার পর বিতর্ক শুরু হয়৷ এরপর রাশিয়া বিশ্বকাপে জার্মানির প্রথম পর্ব থেকে বিদায়ের পর এই বিতর্ক আরও জোরদার হয়৷ তার প্রতিক্রিয়ায় জার্মান জাতীয় দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেন ও্যজিল৷

পুরো ঘটনা ঠিকমতো সামলাতে ব্যর্থ হওয়ায় গ্রিন্ডেলের সমালোচনা করেছিলেন অনেকে৷ তাঁর পদত্যাগের দাবিও করেছেন কয়েকজন রাজনৈতিক নেতা৷

এই অবস্থায় বৃহস্পতিবার বিবৃতি দেয়ার মাধ্যমে নিজের প্রতিক্রিয়া জানানোর চেষ্টা করেছেনডিএফবি প্রেসিডেন্ট গ্রিন্ডেল

তিনি বলেন, তাঁর ও ডিএফবির বিরুদ্ধে ওঠা বর্ণবাদের অভিযোগ তিনি ‘প্রবলভাবে প্রত্যাখ্যান' করছেন৷ ‘‘ডিএফবির মূল্যবোধ আমারও মূল্যবোধ৷ বৈচিত্রতা, একাত্মতা, বৈষম্যবিরোধিতা ও ইন্টিগ্রেশন, এসব মূল্যবোধের অবস্থান আমাদের হৃদয়ের অতি কাছে,'' বলেন গ্রিন্ডেল৷

আলোচিত ছবিটি ব্যবহার করে ও্যজিল ও তাঁর আরেক জার্মান সহকর্মী গুনডোয়ানের তুর্কি ঐতিহ্যের বিরুদ্ধে বর্ণবাদী হামলা উসকে দেয়ার ঘটনায় তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন৷ ‘‘প্রেসিডেন্ট হিসেবে আমার স্পষ্ট করে বলা উচিত ছিল যে, কোনো প্রকারের বর্ণবাদমূলক বৈরিতা সহ্য করা হবে না,'' বলেন ডিএফবি প্রেসিডেন্ট গ্রিন্ডেল৷

উল্লেখ্য, জার্মান দল থেকে সরে দাঁড়ানোর বিবৃতিতে ও্যজিল ডিএফবি প্রধানের বিরুদ্ধে তাঁকে রক্ষায় এগিয়ে আসতে ব্যর্থ হওয়ার অভিযোগ এনেছিলেন৷ ‘‘গ্রিন্ডেল ও তাঁর সমর্থকদের চোখে আমরা যখন জিতি তখন আমি জার্মান, কিন্তু যখন হারি, তখন আমি একজন অভিবাসী৷ এর কারণ, জার্মানিতে কর দেয়া, জার্মান স্কুলে সহায়তা দেয়া এবং জার্মানির হয়ে বিশ্বকাপ জেতার পরও আমাকে সমাজে গ্রহণ করা হয়নি৷ আমাকে ‘ভিন্ন' হিসেবে মনে করা হয়েছে,'' বিবৃতিতে লিখেছিলেন ও্যজিল৷

এদিকে, বৃহস্পতিবারের বিবৃতিতে ডিএফবি প্রেসিডেন্ট গ্রিন্ডেল আরও জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে ইন্টিগ্রেশন প্রক্রিয়া আরও তরান্বিত করতে ডিএফবি তার চেষ্টা বাড়াবে৷

এ বিষয়ে আপনার কোনো মতামত থাকলে লিখুন নীচে মন্তব্যের ঘরে৷

চাক পেনফোল্ড/জেডএইচ

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন