আফগানিস্তান থেকে জার্মানির বেরোনোর উপায় নেই | বিশ্ব | DW | 13.03.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

আফগানিস্তান

আফগানিস্তান থেকে জার্মানির বেরোনোর উপায় নেই

আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সবশেষ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটিতে নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় আফগানিস্তান পুনর্গঠনে জার্মানি যেসব সহায়তার অঙ্গীকার করেছে, তা বাস্তবায়নের কাজ ব্যাহত হচ্ছে৷

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ন্যাটো বাহিনীর সৈন্যরা চলে যাওয়ার পর আফগানিস্তানের নিরাপত্তা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি ঘটে৷ ফলে সেখানে বেসামরিক সহায়তা দেয়া প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে৷ বর্তমানে শুধুমাত্র ‘নিরাপদ ও প্রবেশ করা যায়' এমন এলাকায় জার্মান ত্রাণকর্মীরা কাজ করছেন বলে জানানো হয়েছে৷ আর আফগান সেনাবাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেয়ার যে পরিকল্পনা আছে জার্মান সেনাবাহিনীর, তার মধ্য থেকে নিরাপত্তাজনিত কারণে মাত্র ‘অর্ধেক' কর্মসূচি বাস্তবায়ন সম্ভব হচ্ছে, বলেও জার্মান সরকারের ঐ প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়৷

ভিডিও দেখুন 02:19
এখন লাইভ
02:19 মিনিট

কী চায় জার্মানি?

এদিকে, বেশি জনসংখ্যা অধ্যুষিত এলাকায় নিরাপত্তা দিতে গ্রামাঞ্চল থেকে নিরাপত্তা প্রহরা সরিয়ে বড় শহরগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করেছে আফগান সরকার৷ কিন্তু তারপরও হামলা বন্ধ করা যাচ্ছে না৷ গত মে মাসে ট্রাক বোমা হামলায় কাবুলের জার্মান দূতাবাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়৷ সেই থেকে জার্মান রাষ্ট্রদূত ও দূতাবাসের কর্মকর্তারা এখনও মার্কিন দূতাবাসে অতিথি হয়ে আছেন৷

তারও আগে ২০১৬ সালের নভেম্বের তালেবানের হামলায় মাজার-ই-শরিফে অবস্থিত জার্মান কনস্যুলেট ক্ষতিগ্রস্ত হয়৷ সেটি এখন আর ব্যবহারযোগ্য অবস্থায় নেই৷ ফলে কনস্যুলেটের কর্মকর্তা ও জার্মান উন্নয়ন সংস্থা জিআইজেড-এর কর্মীরা পার্শ্ববর্তী একটি জার্মান সামরিক কেন্দ্রে অবস্থান করছেন৷

২০০৩ সাল থেকে উত্তর আফগানিস্তানে জার্মান সেনা মোতায়েন আছেন৷ সেখানে বর্তমানে সাড়ে নয়শ'র মতো সেনা আছেন৷ কিন্তু পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন বলছে, নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় সেখানে জার্মান সেনা সংখ্যা আরও বাড়ানো উচিত৷

এদিকে, ন্যাটো বাহিনী চলে যাওয়ার পর আফগানিস্তানের অর্থনৈতিক পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় অনেক আফগান দেশ ছেড়ে যাচ্ছেন৷ এদের একটি বড় অংশ আসছেন জার্মানিতে৷ অর্থনৈতিক অবস্থার সন্তোষজনক উন্নতি না হওয়া, দুর্নীতি, নিরাপত্তা পরিস্থিতি, জনসংখ্যা প্রবৃদ্ধি - এসব কারণে আফগানরা দেশ ছাড়ছেন বলে জার্মান সরকারের ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে৷

জানা যায়, বর্তমানে প্রায় আড়াই লক্ষ আফগান নাগরিক জার্মানিতে বসবাস করছেন৷ এদের মধ্যে ১৫ হাজার জনকে আফগানিস্তানে ফেরত পাঠাতে চায় জার্মানি৷ কিন্তু জার্মান সরকারের চোখে যে দেশের পরিস্থিতি এত খারাপ সেখানে মানুষদের ফেরত পাঠানো ঠিক কিনা তা নিয়ে জার্মানিতেই বিতর্ক আছে৷

স্যান্ড্রা পেটারসমান/জেডএইচ

বন্ধু, প্রতিবেদনটি নিয়ে আপনার মন্তব্য লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও