বসন্তেও হাড় কাঁপানো শীত, কারণ উষ্ণায়ণ | বিজ্ঞান পরিবেশ | DW | 29.03.2013
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

বসন্তেও হাড় কাঁপানো শীত, কারণ উষ্ণায়ণ

জার্মানিতে এখনো প্রচণ্ড শীত৷ অবাক করা ব্যাপার, কোথায় বসন্তের মৃদুমন্দ হাওয়ায়, ঝলমলে আকাশের নীচে ফুরফুরে মেজাজে রোদ পোহাবে সবাই, তা নয়, শীতে সবাই জুবুথুবু৷ কারণ নাকি উষ্ণতা!

অদ্ভুত শোনাতে পারে, তবে বিজ্ঞানীরা বেশ তথ্যানুসন্ধান আর গবেষণা করেই এসেছেন এই সিদ্ধান্তে৷ ক'দিন আগে জার্মানির এক পত্রিকায় ছাপা হয়েছে দুটি ছবি৷ একটিতে দেখানো হয়েছে গত বছরের মার্চে সংক্ষিপ্ত পোষাকে দিব্যি সূর্যস্নান করছেন আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা৷ পরেরটি চলতি মাসের৷ সেখানে সবাই গায়ে পোশাকের পোশাক চাপিয়েও শীতের কষ্ট সয়ে নেমেছে ঘরের বাইরে৷ ইউরোপ এবং পূর্ব ইউরোপের বড় একটা অংশ জুড়েই চলছে এই অবস্থা৷ চলছে তুষার আর বরফের উৎপাত৷ তারা আড়াল হলে গম্ভীর আকাশের নীচে কনকনে ঠাণ্ডা হালকা ঝড়ো হাওয়ার দাপট৷ জীবন অতীষ্ঠ! বিজ্ঞানীরা বলছেন, বিশ্বের উষ্ণায়নই নাকি নাটের গুরু৷ এক হিসেবে দেখা গেছে ১৯৭৯ সালে যখন উপগ্রহের মাধ্যমে পরিমাপ শুরু হলো তখন উত্তর মেরুতে ৭০ লক্ষ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ছিল বরফ আর বরফ৷ গত বছর সেই বরফ গলে কমতে কমতে এসে ঠেকেছে ৩৪ লক্ষ বর্গ কিলোমিটারে! বরফ তো উত্তাপেই গলে৷ সেই উত্তাপের কারণ ‘উষ্ণায়ণ'/এর কুপ্রভাব ছাড়া কী হবে!

তা সেই উত্তর মেরুর বরফ গলে অসময়ে ঠাণ্ডা বাড়িয়েছে ইউরোপ আর উত্তর ইউরোপে৷ ভাববেন না, বাংলাদেশ, ভারত, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, ভুটান পাকিস্তান, আফগানিস্তান বা আশপাশের এলাকায় থাকলেও নিজেদের নিরাপদ ভাববেন না যেন! প্রকৃতির দিকে তাকান৷ প্রকৃতি বিরূপ হলে কিন্তু রক্ষা নেই কারো!

এসিবি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন