1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

এমএইচ৩৭০ খোঁজার কাজ যতদূর এগলো

মালয়েশিয়া এয়ারলাইনসের এমএইচ৩৭০ ফ্লাইট নিখোঁজের দুই বছর আজ৷ তদন্তকারীরা বলছেন হারিয়ে যাওয়ার কারণ এখনও রহস্যে ঘেরা৷

২০১৪ সালের ৮ মার্চ কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিং যাওয়ার পথে ফ্লাইটটি নিখোঁজ হয়৷ সেই সময় বিমানে ২৩৯ জন যাত্রী ও কেবিন ক্রু ছিলেন৷ এদের বেশিরভাগই চীন ও মালয়েশিয়ার নাগরিক৷

মালয়েশিয়ার নেতৃত্বে একটি আন্তর্জাতিক দল বিমানটি হারিয়ে যাওয়ার কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করছেন৷ নিখোঁজের দুই বছর পূর্তিতে দেয়া ছোট্ট এক বিবৃতিতে তদন্ত দল আশার কোনো বাণী শোনাতে পারেনি৷ ‘‘এমএইচ৩৭০-এর খোঁজে দক্ষিণ ভারত মহাসাগরে যে তল্লাশি চলছে সেখান থেকে এখন পর্যন্ত কোনো ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পাওয়া যায়নি'', বিবৃতিতে জানিয়েছে দলটি৷

তদন্ত দল যে তল্লাশি অভিযানের কথা বলছে সেটি পরিচালনা করছে অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বে একটি আন্তর্জাতিক দল৷ স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তারা বিমানটি খোঁজার জন্য একটি সীমানা নির্ধারণ করেছেন – যার আয়তন বেলজিয়ামের প্রায় চারগুণ৷

এখন পর্যন্ত প্রায় ৭০ শতাংশ এলাকায় তল্লাশি চালাতে সক্ষম হয়েছে দলটি৷ তবে কিছু পাওয়া যায়নি৷ বাকি এলাকায় অভিযান চালাতে চলতি বছর লাগতে পারে বলে জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক৷

এদিকে, তল্লাশি এলাকায় কিছু পাওয়া না গেলেও গত জুলাই মাসে ঐ অঞ্চল থেকে কয়েক হাজার কিলোমিটার দূরে রিইউনিয়ন দ্বীপে একটি বিমানের পাখার অংশ পাওয়া যায়৷ পরে সেটি হারিয়ে যাওয়া এমএইচ৩৭০ ফ্লাইটের বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে৷ ক'দিন আগে মোজাম্বিকে আরও একটি বিমানের অংশ পাওয়া গেছে৷ সেটিও এমএইচ৩৭০ ফ্লাইটের বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ তবে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি৷

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী জানান, তল্লাশি অভিযান শেষেও যদি কিছু না পাওয়া যায় তাহলে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করা হবে৷ অবশ্য তিনি এর মধ্যেই কিছু পাওয়ার চেষ্টা করছেন৷ অস্ট্রেলিয়ার পরিবহণমন্ত্রীও এমন আশার কথা জানিয়েছেন৷

নিখোঁজ বিমানের ডাটা রেকর্ডার উদ্ধারের কাজও শুরু হবে৷ এ জন্য পানির নীচে প্রায় চার কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে হতে পারে৷ এর আগে ২০০৯ সালে এয়ার ফ্রান্সের একটি বিমান অ্যাটলান্টিক মহাসাগরে দুর্ঘটনায় পড়লে তারও রেকর্ডার উদ্ধার করা হয়েছিল সাগরের প্রায় চার কিলোমিটার নীচ থেকে৷

এদিকে, এমএইচ৩৭০ খুঁজে না পাওয়ায় যাত্রীদের অনেক আত্মীয় মালয়েশিয়ান এয়ারলাইস ও বিমান প্রস্তুতকারকের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন৷ বিভিন্ন দেশে এসব মামলা হয়েছে৷ অনেকে অবশ্য অন্যভাবেও বিষয়টির নিষ্পত্তি করেছেন৷

ভিডিও দেখুন 02:14

জেডএইচ/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

এমএইচ৩৭০ বিমানটি কি কোনোদিন খুঁজে পাওয়া যাবে? আপনাদের কী মনে হয়? জানান নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন