1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

একটি জলবায়ু চুক্তির জন্য

পাঁচ বছর আগে একটি চুক্তির জন্য অপেক্ষায় ছিল বিশ্ব৷ সেটা হয়নি৷ আগামী বছর প্যারিসে জাতিসংঘের উদ্যোগে যে জলবায়ু সম্মেলন হবে সেখান থেকে যেন খালি হাতে ফিরতে না হয় সেজন্য এখন থেকেই কাজ শুরু হয়ে গেছে৷

পেরুর রাজধানী লিমায় আলোচনায় বসেছেন ১৯০টিরও বেশি দেশের কর্মকর্তা৷ তাঁদের লক্ষ্য, কার্বন নির্গমন কমাতে বিভিন্ন দেশের কাছ থেকে অঙ্গীকার আদায় করা৷ সোমবার শুরু হওয়া সম্মেলন চলবে ১২ তারিখ পর্যন্ত৷

প্যারিসে সম্মেলনটি শুরু হবে আগামী বছরের ৩০শে নভেম্বর৷ চলবে ১১ই নভেম্বর পর্যন্ত৷ ঐ সম্মেলনে যাওয়ার আগে আগামী বছরের শুরুর দিকেই যেন দেশগুলো নির্গমন কমাতে তাদের অঙ্গীকার ঘোষণা করে তাহলে একের সঙ্গে অন্যের তুলনা করা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন লিমা সম্মেলনে অংশ নেয়া কর্মকর্তারা৷

পাঁচ বছর আগে ডেনমার্কের কোপেনহাগেনে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে একটি জলবায়ু চুক্তির আশায় ছিলেন বিশ্ববাসী৷ সেজন্য অনেক দৌড়ঝাঁপও করা হয়েছিল৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেটা সম্ভব হয়নি৷ এবার প্যারিসে সেই আশা পূরণ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে৷ কারণ যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন কার্বন নির্গমন কমাতে বেশ বড় অঙ্গীকার ঘোষণা করেছে৷ বিশ্বের অন্যতম বড় নির্গমনকারী দেশ হওয়ায় তাদের অঙ্গীকার চুক্তি পেতে সহায়তা করবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা৷ যদিও এখনো ভারত, জাপান, রাশিয়া ও অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশগুলোর কাছ থেকে অঙ্গীকারের কথা শোনা যায়নি৷

জলবায়ু বিষয়ক ইইউ-র একজন কর্মকর্তা এলিনা বার্ড্রাম মনে করেন, ‘‘এটা (যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও ইইউ-র অঙ্গীকার) বাকি বিশ্বকে যত শিগগির সম্ভব তাদের অঙ্গীকার ঘোষণা করতে উৎসাহিত করবে৷''

লিমা সম্মেলনের আয়োজক দেশ পেরুর প্রেসিডেন্ট ওলান্তা উমালা বলেন, ‘‘জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে লড়তে একটি বড় জোট গড়াটা খুব জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে৷''

জলবায়ু চুক্তির মূল লক্ষ্য হবে বৈশ্বিক উষ্ণতা দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে নিয়ে আসা – যেমনটা ছিল পূর্ব-শিল্পায়ন যুগে৷

জেডএইচ/এসবি (এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়