1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

আবর্জনা থেকে ইট তৈরির পরিকল্পনা তাঁর

আবর্জনাকে লাভজনক কাঁচামালে পরিণত করা গেলে তা যেমন পরিবেশের জন্য লাভজনক হয়, তেমনি এতে কিছু লোকেরও কর্মসংস্থান হয়৷ গ্যাবনের একটি কোম্পানি সেই চেষ্টাই করছে৷

‘গ্লোবাল সার্ভিসেস' নামের এই কোম্পানির কর্মীরা প্রতি সপ্তাহে কয়েকবার লাম্বারেনে বাজারে গিয়ে ময়লা বাছাই করেন৷ জৈব ময়লা ভরা হয় গোলাপি রংয়ের ব্যাগে, আর প্লাস্টিক আবর্জনা নীল রংয়ের ব্যাগে৷ কোম্পানির প্রধান নির্বাহী ফার্মিন মাকায়া বলেন, ‘‘দুর্ভাগ্যবশত এখানকার (লাম্বারেনের) মানুষ রাস্তায় ময়লা ফেলতে অভ্যস্ত৷ অনেকে বুঝতে পারেন না কেন ময়লা পৃথক ও রিসাইকেল করা উচিত৷ তাই প্রতিবারই আমাদের তাদের এই ব্যাপারটা বোঝাতে হয়৷ শুধুমাত্র অধিবাসীদের নয়, শহর কর্তৃপক্ষকেও৷''

গত কয়েক বছরে লাম্বারেনের আবর্জনা সমস্যা বড় হয়ে উঠেছে৷ বর্জ্য ব্যবস্থাপনার অস্তিত্ব আছে শুধু কাগজে৷

৩৭ বছর বয়সি মাকায়া একটি বর্জ্য সংগ্রহকারী কোম্পানি চালু করেছেন যেখানে আটজন কাজ করে৷ তারাই এখন লাম্বারেনের তারকা৷ তাদের কাজ সম্পর্কে বাজারের একজন বললেন, ‘‘তারা যা করছে দেখে ভালোই লাগছে৷ কারণ এই এলাকায় যারা কাজ করে তাদের জন্য পরিচ্ছন্ন পরিবেশ প্রয়োজন৷'' আরেক নারীর মন্তব্য এরকম, ‘‘সত্যিই আগে এখানে অনেক ময়লা থাকত৷ কিন্তু যখন থেকে ‘গ্লোবাল সার্ভিসেস' কাজ শুরু করেছে, আপনি পার্থক্যটা দেখতে পাচ্ছেন৷''

তিন চাকার যানে করে প্রতিদিন লাম্বারেনের পাশে থাকা স্তূপে ময়লা ফেলা হয়৷ শুরুর বিনিয়োগের টাকা দিয়ে এর অর্থায়ন করে কোম্পানি৷ একটি প্রতিযোগিতায় জিতে এই অর্থ পেয়েছিলেন মাকায়া৷

লাম্বারেনের জঙ্গলে একটি রিসাইকেল প্ল্যান্ট স্থাপন করতে চান মাকায়া৷ বালুর সঙ্গে প্লাস্টিক বর্জ্য মিশিয়ে সিমেন্টের মতো ইট তৈরি করা হবে৷ রাস্তা তৈরিতে এই ইট কাজে লাগানো যাবে৷ ইতিমধ্যে জমি কেনা হয়ে গেছে, সেটা পরিষ্কারও করা হয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়