৯০ হাজার গ্রামে বিনামূল্যে স্যানিটারি প্যাড | বিশ্ব | DW | 24.09.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

৯০ হাজার গ্রামে বিনামূল্যে স্যানিটারি প্যাড

বাংলাদেশের গ্রামের মেয়েদের ঋতুস্রাবের সময় যেন বিদ্যালয়ে যাওয়া বন্ধ না হয় সেজন্য বিনামূল্যে স্যানিটারি প্যাড দেওয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার৷

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

তথ্য প্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসান এএফপিকে বলেন, আগামী বছরের শুরুতে ৯০ হাজার গ্রামে এমন একটি প্রকল্প চালুর পরিকল্পনা করছে সরকার৷

গবেষকরা বলছেন, বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে ঋতুস্রাব নিয়ে এক ধরনের ট্যাবু রয়েছে৷ ঋতুস্রাবের সময় ৪০ শতাংশ ছাত্রী বিদ্যালয়ে না গিয়ে বাড়িতে থাকে৷

এমবিবিএস ডিগ্রীধারী মুরাদ হাসান এর আগে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ছিলেন৷  তিনি বলেন, ‘‘এটা খুবই উদ্বেগজনক, আমরা তাদের ভবিষ্যৎকে ঝুঁকিতে রাখতে পারি না৷ ঋতুস্রাবের প্যাডের অপ্রাপ্যতা, এবং স্বাস্থ্যসম্মত প্যাডের দাম বেশি হওয়া এবং বিদ্যালয়গুলোতে এগুলো না থাকায় ওই সময় ছাত্রীরা স্কুলে যায় না৷

গ্রামগুলোতে বাংলাদেশের ৬৩ শতাংশ মানুষ বসবাস করে৷ দরিদ্র অভিভাবকরা তাদের মেয়েদের ঋতুস্রাবের সময় স্বাস্থ্যসম্মত প্যাড কিনে দিতে পারেন না বলে ওই সময় তাদের বাড়িতেই থাকতে বলেন৷

বিশ্ব ব্যাংকের তথ্যানুযায়ী, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মাত্র ছয় শতাংশ বিদ্যালয়ের পাঠ্যক্রমে ঋতুস্রাব বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে৷

বিভিন্ন দাতা সংস্থাকে সঙ্গে নিয়ে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের ঋতুস্রাব সম্পর্কে সচেতন করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানান মুরাদ হাসান৷

সরকারের এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু৷ তিনি এএফিপকে বলেন, ''আমরা দীর্ঘদিন ধরে এটা দাবি করে আসছি৷ এটি খুবই ইতিবাচক উদ্যোগ, যা সামাজিক দৈন্যতা মোকাবেলায় সহায়তা করবে৷ এই উদ্যোগটি অবশ্যই ঝরে পড়ার হার কমাতে সহায়তা করবে৷’’

এআই/এসিবি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন