৭০ শতাংশ মানুষকে করোনা টিকা দিয়েছে ইইউ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 01.09.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইউরোপ

৭০ শতাংশ মানুষকে করোনা টিকা দিয়েছে ইইউ

লক্ষ্যমাত্রার এক মাস আগেই ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৭০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ করোনা টিকা পেয়ে গেছেন৷ ফলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তুলনায় এ ক্ষেত্রে আরো এগিয়ে গেল ইউরোপ৷

সিদ্ধান্তের ধীর গতি ও আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে নাগরিকদের জন্য করোনা টিকার ব্যবস্থা করতে ইউরোপীয় ইউনিয়নকে প্রথমদিকে বেশ বেগ পেতে হয়েছে৷ যথেষ্ট পরিমাণ টিকা সরবরাহ নিশ্চিত না করায় টিকাদান কর্মসূচিও প্রথমদিকে গতি পায়নি৷ ধীরে ধীরে সে সব দুর্বলতা কাটিয়ে উঠে সদস্য দেশগুলিতে ১২ বছরের বেশি প্রায় সব মানুষ করোনা টিকা নেবার সুযোগ পেয়েছে৷ মঙ্গলবার ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ফন ডেয়ার লাইয়েন বলেন, লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ইইউ দেশগুলিতে ৭০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক, অর্থাৎ ২৫ কোটিরও বেশি মানুষ করোনা টিকা পেয়ে গেছেন৷ তিনি এই বিশাল সাফল্য সম্পর্কে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন৷

ইইউ কমিশন প্রেসিডেন্ট অবশ্য তাঁর ভিডিও বার্তায় মানুষকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, মহামারি এখনো দূর হয় নি৷ তাই এখনো সাবধান থাকতে হবে৷ অবশিষ্ট মানুষের উদ্দেশ্যে তিনি দ্রুত করোনা টিকা নেবার আবেদন করে বলেন, একমাত্র এভাবেই সংক্রমণের নতুন ঢেউ এবং করোনা ভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্টের আবির্ভাব মোকাবিলা করা সম্ভব৷ সেইসঙ্গে বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলিকে করোনা টিকার ক্ষেত্রে সাহায্যের উপরও গুরুত্ব দেন তিনি৷ পৃথিবীর সব প্রান্তে কাবু করতে পারলে তবেই এই মহামারি শেষ করা যাবে, বলেন ফন ডেয়ার লাইয়েন৷

২০২০ সালের একেবারে শেষ পর্যায়ে ইইউ করোনা টিকা কর্মসূচি শুরু করেছিল৷ তখন ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসের শেষের মধ্যে ৭০ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্কদের টিকা দেবার প্রাথমিক লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছিল৷ তার এক মাস আগেই সেই লক্ষ্য পূরণ করা সম্ভব হয়েছে৷ নতুন কোনো পরিকল্পনা না থাকলেও টিকা কর্মসূচি পুরোদমে চালিয়ে যেতে চায় ইইউ কমিশন৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনা টিকা কর্মসূচি আরও আগে শুরু হলেও ইইউ সে দেশকে এ ক্ষেত্রে পেছনে ফেলে দিয়েছে৷ অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী অ্যামেরিকার মোট জনসংখ্যার ৫২ শতাংশ টিকার সব প্রয়োজনীয় ডোজ পেয়ে গেছেন৷ অন্যদিকে ইইউ-র মোট জনসংখ্যার ৫৬ শতাংশ সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করেছেন৷ তবে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যেও এ ক্ষেত্রে বিশাল ফারাক দেখা যাচ্ছে৷ বুলগেরিয়ায় প্রতি পাঁচ জন প্রাপ্তবয়স্কের মধ্যে মাত্র এক জন করোনা টিকা নিয়েছেন৷ অন্যদিকে আয়ারল্যান্ডে প্রতি পাঁচ জন প্রাপ্তবয়স্কের মধ্যে চার জনই টিকা পেয়ে গেছেন৷ ইইউ এমন ফারাক সম্পর্কে উদ্বিগ্ন হয়ে জাতীয় কর্তৃপক্ষের তৎপরতা বাড়ানোর ডাক দিয়েছে৷ প্রয়োজন দেখা দিলে বুস্টার ডোজের জন্যও প্রস্তুতি রাখতে বলা হয়েছে৷

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অবশ্য ইউরোপে করোনা টিকা কর্মসূচির গতি কমার ফলে দুশ্চিন্তা প্রকাশ করেছে৷ এর ফলে ১লা ডিসেম্বরের মধ্যে বাড়তি দুই লাখ মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা করছে ডাব্লিউএইচও৷

এসবি/এসিবি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়