১৮ জনের জবাবে ২০ জনকে বহিষ্কার করে রাশিয়ার ‘প্রতিশোধ′ | বিশ্ব | DW | 19.04.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

রাশিয়া

১৮ জনের জবাবে ২০ জনকে বহিষ্কার করে রাশিয়ার ‘প্রতিশোধ'

শনিবার তাদের ১৮ জন কূটনীতিককে বহিষ্কার করার পর মাত্র একদিন সময় নিয়েছে রাশিয়া৷ ২০ জন চেক কূটনীতিককে বহিষ্কার করে জবাব দিয়েছে তারা৷

২০১৪ সালের ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনায় রাশিয়ার ১৮জন কূটনীতিকের বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ তুলে শনিবার তাদের বহিষ্কারের ঘোষণা দেয় চেক প্রজাতন্ত্র৷ দেশটির আরো দাবি, ২০১৮ সালে ইংল্যান্ডে রাশিয়ার সাবেক গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপালকে বিষ খাওয়ানোর ঘটনায় জড়িত দুই গুপ্তচরও ২০১৪-র বিস্ফোরণের ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত৷

রোববার মস্কোয় চেক প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রদূত ভিতেস্লাভ পিভোনকাকে ডেকে নিয়ে ২০ জন কূটনীতিককে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেয় রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷ এক বিবৃতিতে মন্ত্রণালয় আরো জানায়, মস্কোর দূতাবাসে কর্মরত ঐ ২০ চেক কর্মকর্তাকে সোমবারের মধ্যে রাশিয়া ছাড়তে হবে৷ রাশিয়া মনে করে, প্রাহার বিস্ফোরণের ঘটনা ‘অভূতপূর্ব' এবং ‘অযৌক্তিক'৷ দু' দেশের স্বাভাবিক সম্পর্কের ভিত্তি ধংস করতে চেক প্রজাতন্ত্র এমন পদক্ষেপ নিয়েছে- এমন অভিযোগ তুলে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিবৃতিতে আরো জানায়, ‘প্রভু' যুক্তরাষ্ট্রকে খুশি করতে এমন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে এবং এর কড়া জবাব দেয়া হবে৷

উত্তেজনা

এদিকে রাশিয়ার পশ্চিম সীমান্তে সেনা সংখ্যা বৃদ্ধি এবং  বিরোধী নেতা আলেক্সি নাভালনির সঙ্গে পুটিন সরকারের নিবর্তনমূলক আচরণের কারণে পশ্চিমা দেশগুলো উদ্বিগ্ন৷ সোমবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এ নিয়ে আলোচনায় বসছেন৷  

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে হস্তপক্ষেপ, হ্যাকিংসহ নানা ধরনের ক্ষতিকর কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে রাশিয়ার ১০ জন কূটনীতিককে বহিষ্কার করে যুক্তরাষ্ট্র৷ পাশাপাশি রাশিয়ার বিরুদ্ধে অবরোধও আরোপ করা হয়৷

প্রতিক্রিয়া

রোববার যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র নেড প্রাইস এক বিবৃতিতে জানান, তার দেশ চেকপ্রজাতন্ত্রের পাশে আছে, থাকবে৷ এক টুইট বার্তায় পোল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ও একই কথা জানিয়েছে৷ ন্যাটো জানিয়েছে, তারাও আছে চেক প্রজাতন্ত্রের পাশে৷

এসিবি কেএম (রয়টার্স, এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন