১৩২টি মসজিদ খুলে দিয়েছে ইরান | বিশ্ব | DW | 05.05.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইরান

১৩২টি মসজিদ খুলে দিয়েছে ইরান

করোনা সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা ছয় হাজার ছাড়ালেও পবিত্র রমজান মাসে অপেক্ষাকৃত নিরাপদ স্থানগুলোতে মসজিদ খুলে দিতে শুরু করেছে ইরান৷ অন্যদিকে দেশটির বিরুদ্ধে ৩১ জন আফগানকে নদীতে ডুবিয়ে হত্যার অভিযোগ তুলেছে আফগানিস্তান৷

ইরানের একটি মসজিদ (ফাইল ছবি)

ইরানের একটি মসজিদ (ফাইল ছবি)

সোমবার আরো ৭৪ জন মৃত্যুবরণ করায় ইরানে করোনা সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ছয় হাজার ২৭৭৷ সবচেয়ে বেশি মৃতের সংখ্যার দিক থেকে সারা বিশ্বে পঞ্চম স্থানে থাকলেও সে দেশের সরকার সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরা রোগীদের সংখ্যা নিয়ে সন্তুষ্ট৷ সরকারের দাবি, এ পর্যন্ত ৭৯ হাজার ৩৯৭ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন৷

রোগমুক্তির উচ্চহারে সন্তোষ প্রকাশ করে ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ক্লানুশ জাহানপুর জানিয়েছেন, সোমবার থেকে দেশের ১৩২ টি, অর্থাৎ মোট মসজিদের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ খোলা থাকবে৷ তবে মুসল্লিদের মাস্ক এবং গ্লাভস পরে সঙ্গে নিজের জায়নামাজ নিয়ে যেতে হবে মসজিদে। নামাজ পড়ার সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে সবাইকে এবং কেউ মসজিদের ভেতরে আধ ঘণ্টার বেশি সময় থাকতে পারবেন না৷

এর পাশাপাশি মসজিদ কর্তৃপক্ষকে মুসল্লিদের মাঝে কোনো খাবার বা পানীয় পরিবেশন না করারও নির্দেশ দিয়েছে সরকার৷ এছাড়া মসজিদের ভেতরে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখার কথাও বলা হয়েছে সরকারের এক বিবৃতিতে৷

ইরানের বিরুদ্ধে আফগানিস্তানের অভিযোগ

রোববার ইরানের সীমান্তরক্ষীদের বিরুদ্ধে অন্তত ৫০ জন আফগানকে পানিতে ফেলে তাদের মধ্যে অন্তত ৩১ জনকে ডুবিয়ে মারার অভিযোগ তুলেছে আফগানিস্তান৷ অভিযোগে বলা হয়, আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলের হেরাত প্রদেশ সংলগ্ন সীমান্তের কাছে ওই আফগানদের ধাওয়া করে নদীতে ঝাঁপ দিতে বাধ্য করা হয়৷ ১২ জন সাঁতরে নদী পার হতে পেরেছেন৷ সাত জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে৷ বাকি তিনজন ডুবে মারা গেছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

এক বিবৃতিতে তীব্র নিন্দা জানিয়ে ঘটনা তদন্তের জন্য উচ্চপর্যায়ের একটি কমিটি গঠনের কথাও জানিয়েছে আফগানিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷

আফগানদের ডুবিয়ে মারার অভিযোগ পুরোপুরি অস্বীকার করেছে ইরান৷

এসিবি/কেএম (এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন