হ্যাকারের কবলে যুক্তরাষ্ট্রের ফায়ারআই | বিশ্ব | DW | 09.12.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সাইবার নিরাপত্তা

হ্যাকারের কবলে যুক্তরাষ্ট্রের ফায়ারআই

যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান ফায়ারআই-কেই হ্যাক করা হয়েছে৷ প্রতিষ্ঠানটি বলছে, সাধারণ কোনো হ্যাকার নয়, নিশ্চয়ই ক্ষমতাধর কোনো দেশ আছে এর পেছনে৷

কোন দেশের মদতে হ্যাক করা হয়ে থাকতে পারে সে বিষয়ে খোলাখুলি কিছু বলেনি সাইবারআই৷ এক ব্লগ পোস্টে শুধু জানিয়েছে, মঙ্গলবার হ্যাকার হ্যাক করে ‘রেড টিম’ টুলস নিয়ে গেছে, যা করা কেবল বিশ্বমানের ক্ষমতাসম্পন্ন কোনো রাষ্ট্রের পক্ষেই সম্ভব৷ রেড টুলস গ্রাহকদের সক্ষমতা পরীক্ষা করার জন্য ব্যবহার করা হয়৷ফায়ারআই-ও তা ব্যবহার করতো গ্রাহকদের সুরক্ষাশক্তি পরীক্ষার কাজে৷

এক সংবাদ সম্মেলনে ফায়ারআই-এর সিইও কেভিন ম্যান্ডিয়া বলেন, ‘‘আমরা এখন এমন এক দেশের আক্রমণ দেখছি যার উচ্চমাত্রার আক্রমণসক্ষমতা রয়েছে৷ এতদিন বছরের পর বছর ধরে আমরা যে ধরনের ঘটনা সামাল দিয়ে এসেছি, এটি সেগুলোর চেয়ে আলাদা৷’’

তিনি মনে করেন, ফায়ারআই-কে আক্রমণ করা যেনতেন কারো কাজ নয়, কারণ, এতে ‘বিশ্বমানের সক্ষমতা’ দরকার৷

হ্যাকিংয়ের ঘটনা প্রকাশের পর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ফায়ারআই-এর শেয়ারের দাম আট ভাগ কমে গেছে৷

সিলিকন ভ্যালিকেন্দ্রিক প্রতিষ্ঠান ফায়ারআই-এর গ্রাহকের তালিকায় রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রীয় এবং আঞ্চলিক সরকারের অনেক প্রতিষ্ঠান৷ এতদিন অনেক বড় বড় সাইবার অপরাধ তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে এসেছে ফায়ারআই৷ যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ভূমিকা রাখে এমন কিছু প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট রুশ প্রতিষ্ঠান হ্যাক করেছিল কিনা তা যাচাই করার দায়িত্বও পেয়েছিল তারা৷ এবার তারাই হ্যাকারের কবলে৷

সাইবার নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ‘রেড টিম টুলস চুরি যাওয়ায় ভবিষ্যতে আরো বড় বড় সাইবার হামলার আশঙ্কা করছে যুক্তরাষ্ট্র৷ এমন কাজ কে বা কারা করেছে তা জানার জন্য তদন্ত শুরু হয়েছে৷ তদন্তে ফায়ারআই-কে সহযোগিত করছে যুক্তরাষ্ট্রের সব রাষ্ট্রীয় সংস্থা এবং মাইক্রোসফট৷

এসিবি/ কেএম (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

সংশ্লিষ্ট বিষয়