হোয়াটসঅ্যাপে ‘মিসড কল′ দিয়ে গোপন তথ্য চুরি! | বিশ্ব | DW | 14.05.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

হোয়াটসঅ্যাপে ‘মিসড কল' দিয়ে গোপন তথ্য চুরি!

হোয়াটসঅ্যাপে শুধুমাত্র একটি ‘মিসড কল' দিয়ে অত্যাধুনিক স্পাই সফটওয়্যার ইন্সটল করা সম্ভব হচ্ছিল বলে স্বীকার করেছে ম্যাসেজিং প্ল্যাটফর্মটি৷ ইসরায়েলের এনএসও গ্রুপ ক্ষতিকর এই প্রোগ্রামটি তৈরি করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷

হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে যে, প্রতিষ্ঠানটির ম্যাসেজিং সফটওয়্যারের একটি দুর্বলতা সারানো হয়েছে৷ সেই দুর্বলতা কাজে লাগিয়ে ‘মিসড কল' দিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের ফোনে স্পাই সফটওয়্যার ইন্সটল করার সুযোগ ছিল৷ ইসরায়েলের একটি কোম্পানি এই সুযোগ নিয়ে কিছু ফোন থেকে তথ্য চুরির পথ তৈরি করে দিয়েছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে৷

এভাবে ঠিক কী পরিমাণ  তথ্য চুরির সম্ভাবনা ছিল তা সঠিকভাবে জানা না গেলেও হোয়াটসঅ্যাপের একজন মুখপাত্র সোমবার রাতে জানিয়েছেন যে, অন্তত কয়েক ডজন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীর ফোনে এভাবে স্পাই সফটওয়্যারের প্রবেশ ঘটানো সম্ভব হয়েছে৷ এ ধরনের হামলা থেকে বাঁচতে তাই হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপটি হালনাগাদ করারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি৷

এদিকে, সংবাদমাধ্যম ফিন্যান্সিয়াল টাইমস এবং টেকক্রাঞ্চ আক্রান্ত হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের ফোনে পাওয়া স্পাইওয়্যারটি ইসরায়েলের এনএসও গ্রুপের তৈরি বলে শনাক্ত করেছে৷ এই গ্রুপটি ‘পেগাসাস' নামের সফটওয়্যার তৈরি করে বিখ্যাত হয়েছিল, যেটি কোনো স্মার্টফোন হ্যাক করে সেটির মাইক্রোফোন এবং ক্যামেরা চালু করতে ও ফোনটির অবস্থান জানতে সক্ষম৷ এমনকি একজনের ফোনের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সেটি দিয়ে তাঁর অজান্তেই ম্যাসেজ পাঠানো বা ফোন কল করতে পারে এই প্রোগ্রাম৷

যদিও হোয়াটসঅ্যাপ ‘মিসড কল' দিয়ে তথ্য চুরির সঙ্গে এনএসও'র সম্পৃক্ততার বিষয়টি নিশ্চিত করেনি, তবে জানিয়েছে, গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন উড়িয়ে দিচ্ছে না প্রতিষ্ঠানটি৷

হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, সরকারগুলোর জন্য মোবাইল ফোনের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে সক্ষম সফটওয়্যার তৈরি করা একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এই কাজ করেছে বলে সব ধরনের ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে৷

প্রসঙ্গত, হোয়াটসঅ্যাপ হচ্ছে ফেসবুকের একটি প্রতিষ্ঠান, যেটির গোটা বিশ্বে দেড় বিলিয়নের মতো ব্যবহারকারী রয়েছে৷ ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা নিশ্চিতে ম্যাসেজিং অ্যাপটি ‘এন্ড টু এন্ড ট্রান্সক্রিপশন' সুবিধা দিয়ে থাকে, যার অর্থ হচ্ছে একটি ফোন থেকে আরেকটি ফোনে পাঠানো বার্তা মধ্যবর্তী অন্য কোনো পক্ষের পক্ষে পড়া সম্ভব নয়৷

ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন সাংবাদিক, ভিন্নমতাবলম্বী, অ্যাক্টিভিস্ট এবং আইনজীবীর স্মার্টফোন এনএসও'র স্পাইওয়্যার আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে৷ আক্রান্তদের একজন তুরস্কের সৌদ দূতাবাসে নিহত সাংবাদিক জামাল খাশগজির ঘনিষ্ঠ বন্ধু৷ ক্যানাডায় বসবাসরত এই ভিন্নমতাবলম্বী এবং ম্যাক্সিকোর কয়েকজন অ্যাক্টিভিস্ট এনএসও'র বিরুদ্ধে ইসরায়েলের আদালতে মামলার উদ্যোগ নিয়েছে, যাতে দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এনএসও'র রপ্তানি লাইসেন্স স্থগিত হয়৷ আইনি এই লড়াইয়ে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালও যোগ দেবে বলে জানিয়েছে৷ 

ফিন্যান্সিয়াল টাইমস অবশ্য লিখেছে, স্পাইওয়্যার সফটওয়্যারগুলো তৈরি করলেও সেগুলো এনএসও নিজে ব্যবহার করে না৷ ইসরায়েলি প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে নিয়ে বিভিন্ন দেশের নিরাপত্তা সংস্থা সেগুলো ব্যবহার করে৷

এআই/এসিবি (ডিপিএ, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন