হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 25.04.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত হয়েছে৷ এমন ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনটির আমির জুনাইদ বাবুনগরী৷

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত হয়েছে৷ এমন ঘোষণা দিয়েছেন সংগঠনটির আমির জুনাইদ বাবুনগরী৷

ফাইল ছবি

রোববার রাতে ফেসবুকে পোস্ট করা এক ভিডিও বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘‘দেশের বর্তমান সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় কমিটির গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের পরামর্শক্রমে বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হইল৷’’

এসময় তিনি বলেন, নতুন একটি আহ্বায়ক কমিটির মাধ্যমে হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালিত হবে।

হেফাজতে ইসলামের ফেসবুক পাতায় এক মিনিট ২৪ সেকেন্ডের এই ভিডিওটি পোস্ট করা হয়েছে রোববার রাতে৷ এ বিষয়ে আর বিস্তারিত কোন তথ্য তিনি দেননি৷

আল্লামা আহমদ শফীর মৃত্যুর পর গত ১৫ নভেম্বর বাবুনগরীকে আমির করে হেফাজতের ১৫১ সদস্যের নতুন কমিটি গঠিত হয়েছিল৷ তার ছয় মাস পার হওয়ার  আগেই বাবুনগরী কমিটি বাতিলের ঘোষণা দিলেন৷ নরেন্দ্র মোদীর সফরকেন্দ্রিক বিক্ষোভ থেকে সহিংসতার ঘটনার পর পুলিশি অভিযানে সংগঠনটির বেশ কয়েকজন নেতা কর্মী গ্রেপ্তার হন৷ সম্প্রতি আরেক ভিডিও বার্তায় বাবুনগরী এই গ্রেপ্তারকৃতদের মুক্তির দাবি জানান৷

ভিডিও দেখুন 45:46

হেফাজত নিয়ে রাজনীতির শেষ কবে?

এদিকে কওমি মাদ্রাসার ছাত্র ও শিক্ষকদের সব ধরনের রাজনীতি ‘মুক্ত’ রাখার ঘোষণা দিয়েছে মাদ্রাসাগুলোর নীতি নির্ধারণী বোর্ড আল হাইআতুল উলয়া লিল জামি’আতিল কওমিয়া বাংলাদেশ। রোববারের বাবুনগরীর ভিডিও বার্তা প্রচারের কয়েক ঘণ্টা আগেই এই ঘোষণা দেয়া হয়৷ 

গত মাসের শেষ দিকে মোদীর সফরের বিরোধিতায় নেমে নতুন করে আলোচনায় আসে হেফাজত৷ সংগঠনটির বিক্ষোভ ও হরতালের সময় ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, চট্টগ্রামে সহিংসতায় বেশ কয়েকজন নিহত হন৷ সেই ঘটনায় প্রায় অর্ধশত মামলার পর হেফাজতের ডজন খানেক কেন্দ্রীয় নেতাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে বলে উল্লেখ করেছে ডয়চে ভেলের বাংলাদেশ কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম৷ পুলিশের দাবি, হেফাজত নেতারা নাশকতার বড় ধরনের পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছিলেন, যার চূড়ান্ত লক্ষ্য ছিল রাষ্ট্রক্ষমতা দখল৷

এফএস (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়