‘হিজড়াদের ধর্ষণ করলে বিচার হয় না’ | বিশ্ব | DW | 30.06.2016

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

‘হিজড়াদের ধর্ষণ করলে বিচার হয় না’

পাকিস্তানের হিজড়াদের ধর্ষণ করা হলে পুলিশ সেটাকে ধর্ষণ হিসেবে গ্রহণই করে না – এমনটাই দাবি করেছেন সেদেশের এক হিজড়া অ্যাক্টিভিস্ট৷ ডয়চে ভেলেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি৷

সমকামীদের বিয়ে ‘শাস্তিযোগ্য অপরাধ’

পাকিস্তানে বর্তমানে হিজড়াদের সংখ্যা দু'লাখের মতো৷ দেশটির রক্ষণশীল সমাজের মূলধারায় তাঁদের অধিকাংশক্ষেত্রেই জায়গা হয় না৷ ফলে দেহব্যবসা, ভিখারি, এমনকি স্ট্রিট ড্যান্সারের মতো কাজে করতে বাধ্য হন তাঁরা৷

আইনি দিক থেকেও দেশটিতে সমকামী এবং হিজড়াদের কোনো অধিকার নেই৷ সমকামীদের মধ্যে বিবাহ এবং যৌনমিলন পাকিস্তানে শাস্তিযোগ্য অপরাধ৷ ডয়চে ভেলেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে দেশটির হিজড়া অ্যাক্টিভিস্ট আলী রাজা, যিনি নিজেকে আলিয়া নামে পরিচয় দিতে বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করেন, জানান, পাকিস্তানে হিজড়ারা নানাভাবে বৈষম্যের শিকার হন৷ বিষয়টি জেনে গেলে সবাই তাঁদের নিয়ে ঠাট্ট মশকরা করেন৷

হিজড়াদের বিভিন্নভাবে যৌন নিপীড়ন করা হয় বলেও জানান বর্তমানে জার্মানিতে অবস্থানরত আলিয়া৷ তিনি বলেন, তাঁদের লাঠি দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে, কিন্তু পুলিশ সেসব অভিযোগ গ্রহণ করে না৷ কেননা, আইন অনুযায়ী, এটা ধর্ষণ নয়৷

পাকিস্তানের ধর্মীয় নেতারা অবশ্য সম্প্রতি জানিয়েছেন, হিজড়ারা – যাঁরা তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ হিসেবেও পরিচিত – বিয়ে করতে পারবেন এবং মুসলমানদের মতোই তাঁদের কবর দেয়া যাবে৷ তবে সেদেশের সমাজে হিজড়াদের সম্পর্কে ইতিবাচক মনোভাব আসতে সময় লাগবে বলে মনে করেন আলিয়া৷

আপনার কি কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও