হাসপাতালে নাভালনির সঙ্গে দেখা করেছেন ম্যার্কেল | বিশ্ব | DW | 28.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

হাসপাতালে নাভালনির সঙ্গে দেখা করেছেন ম্যার্কেল

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিনের কট্টর সমালোচক আলেক্সি নাভালনির সঙ্গে বার্লিনের হাসপাতালে দেখা করেছেন জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল৷ ম্যার্কেলের মুখমাত্র একে ব্যক্তিগত সাক্ষাৎ বলে আখ্যায়িত করেছেন৷

বার্লিনের শারিটে হাসপাতালে ৩২দিন চিকিৎসা নেয়ার পর গত সপ্তাহে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান নাভালনি৷ ২০ আগস্ট রাশিয়ায় এক অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে অসুস্থ হয়ে দুই দিন কোমায় ছিলেন নাভালনি৷ এরপর তাকে চিকিৎসা দিতে বার্লিনে নিয়ে আসা হয়৷ ৩২ দিনের মধ্যে ২৪ দিন নাভালনিকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে থাকতে হয়েছিল৷

জার্মান চিকিৎসকরা নাভালনির শরীরে নোভিচক এজেন্টের উপস্থিতির প্রমাণ পেয়েছেন৷ এরপর ফ্রান্স ও সুইডেনের চিকিৎসকরাও একই প্রমাণ পান৷ তবে রাশিয়া এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে৷

আরো পরীক্ষার জন্য নাভালনির নমুনা ‘অর্গানাইজেশন ফর দ্য প্রোহিবিশিন অফ কেমিক্যাল উইপন’-এ পাঠানো হয়েছে৷

জার্মান ম্যাগাজিন ‘ডেয়ার স্পিগেল’ রবিবার সন্ধ্যায় নাভালনির সঙ্গে ম্যার্কেলের দেখা করার সংবাদ প্রথম প্রকাশ করে৷ তারা একে ‘গোপন’ সাক্ষাৎ বলে আখ্যায়িত করে৷ এরপর নাভালনি নিজে টুইট করে সাক্ষাতের বিষয়টি নিশ্চিত করেন৷ তবে তিনি মনে করেন, একে ‘গোপন’ বলা উচিত নয়৷ টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘‘একটা মিটিং হয়েছিল, তবে একে গোপন বলা উচিত নয়৷ বরং এটা একটা ব্যক্তিগত সাক্ষাৎ ছিল, পরিবারের সঙ্গে আলোচনা ছিল৷ হাসপাতালে আমার সঙ্গে দেখা করায় চ্যান্সেলর ম্যার্কেলের কাছে আমি কৃতজ্ঞ৷’’

নাভালনির টুইটের পর ম্যার্কেলের মুখমাত্র স্টেফেন সাইবার্টও সাক্ষাতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন৷ সোমবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‘চ্যান্সেলর ও জনাব নাভালনির মধ্যে এটা ব্যক্তিগত সাক্ষাৎ ছিল৷ এটা এমন এক ব্যক্তির সঙ্গে বৈঠক, যিনি নার্ভ এজেন্ট হামলার শিকার হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন এবং যাকে জার্মানিতে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে৷’’

সাক্ষাৎটি গত সপ্তাহে হয় বলে জানান সাইবার্ট৷ তবে ঠিক কোনদিন, তা জানাতে চাননি৷ এছাড়া ভবিষ্যতেও দুজনের মধ্যে বৈঠকের সম্ভাবনা আছে কিনা সে বিষয়েও কিছু বলতে চাননি ম্যার্কেলের মুখপাত্র৷

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও পুনর্বাসনের জন্য নাভালনিকে এখনও আরো কিছুদিন জার্মানিতে থাকতে হবে৷

নাভালনির শরীরে যে নোভিচক এজেন্ট পাওয়া গেছে তা ২০১৮ সালে ইংল্যান্ডে সাবেক রুশ গোয়েন্দা সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়ের শরীরেও পাওয়া গিয়েছিল৷

নাভালনিকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করা হয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন ম্যার্কেল৷ তিনিসহ অন্যান্য বিশ্বনেতারা রাশিয়ার কাছে এই ঘটনার তদন্ত দাবি করেছেন৷

জেডএইচ/এসিবি (এপি, রয়টার্স)

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন