‘হলোকস্টকে স্মরণে রাখতেই হবে’ আউশভিৎসে বললেন ভুল্ফ | বিশ্ব | DW | 27.01.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘হলোকস্টকে স্মরণে রাখতেই হবে’ আউশভিৎসে বললেন ভুল্ফ

নাৎসি আমলের ইহুদি নিধনযজ্ঞ বা হলোকস্ট-এর কথা ভোলার নয়৷ ২৭ জানুয়ারি, অর্থাৎ আজই জাতিসংঘ ঘোষিত আন্তর্জাতিক হলোকস্ট স্মরণ দিবস৷ তাই নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে জার্মান প্রেসিডেন্ট ক্রিশ্চিয়ান ভুল্ফ সকালেই গেছেন পোল্যান্ডে৷

default

হলোকস্টকে স্মরণে রাখতে পোল্যান্ডে জার্মান প্রেসিডেন্ট

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে ১৯৪৩ সালে জার্মানির কয়েকটি নাৎসি কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্পসহ পোল্যান্ডের আউশভিৎস এবং বির্কেনাউ কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্পে লাখ লাখ ইহুদিকে হত্যা করেছিল নাৎসিরা৷ নাৎসি আমলের ইহুদি নিধনযজ্ঞ বা হলোকস্ট-এর দীর্ঘ ছয় দশকেরও বেশি সময় পার হয়ে গেছে৷ কিন্তু ভয়াবহ সেই ঘটনার কালো ছায়া আজও জীবন্ত৷ আজ হলোকস্টের ৬৬ তম বার্ষিকী৷

নিহত ইহুদিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে জার্মান প্রেসিডেন্ট ক্রিশ্চিয়ান ভুল্ফ বৃহস্পতিবার সকালেই গেছেন পোল্যান্ডে৷ পোল্যান্ডের আউশভিৎস-বির্কেনাউ কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্প প্রাঙ্গনে হলোকস্ট থেকে বেঁচে যাওয়া জীবিতদের সঙ্গে মিলিত হন জার্মান প্রেসিডেন্ট ক্রিশ্চিয়ান ভুল্ফ এবং পোলিশ প্রেসিডেন্ট ব্রনিস্লাভ কমোরোভস্কি৷ বৃহস্পতিবার দিনের শুরুতেই জার্মান প্রেসিডেন্ট তরুণদের উদ্দেশ্যে বলেন, হলোকস্টকে স্মরণ রাখা সবার দায়িত্ব৷ তিনি বলেন, প্রতিটি প্রজন্মকে জানতে হবে, নাৎসি যুগে সভ্যতা কীভাবে ভেঙে পড়েছিল এবং এই অপরাধের পুনরাবৃত্তি প্রতিরোধে তাদেরকে কাজ করতে হবে৷

Holocaust Mahnmal in Berlin Deutschland Flash-Galerie

বার্লিনে অবস্থিত হলোকস্ট মেমোরিয়াল

প্রেসিডেন্ট ক্রিশ্চিয়ান ভুল্ফ বলেন, ‘‘এই অমানবিক ঘটনা অনেক আগেই একটি প্রামাণ্য চিত্রের মাধ্যমে আমার কাছে পরিষ্কার হয়ে যায়৷ এই নিয়ে জার্মানিতে বিতর্কেরও সৃষ্টি হয়েছিল যেখানে আমি লক্ষ্য করি পুরো ঘটনাটিকে এড়িয়ে যাবার একটা চেষ্টাও ছিল৷''

আউশভিৎস-এর সাবেক বন্দি এবং তরুণদের সঙ্গে মিলিত হবেন জার্মান প্রেসিডেন্ট৷ এর পরে নিহতদের স্মরণে ‘ডেথ ওয়াল'-এ পুস্প স্তবক অর্পণ করা ছাড়াও দিনটি উপলক্ষে আনুষ্ঠানিক বক্তব্য রাখেন নেতারা৷ পোলিশ প্রেসিডেন্ট ব্রনিস্লাভ কমোরোভস্কি বলেন, পোলিশরা প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে যুদ্ধের এই দীর্ঘ ক্ষত বহন করবে৷ এমন কী তিনি নিজেও৷ পোলিশ প্রেসিডেন্ট বলেন. তাঁর পুরো শৈশব জুড়ে রয়েছে যুদ্ধের যন্ত্রণাময় স্মৃতি৷

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়ে নাৎসি জার্মানি শুধু আউশভিৎস কনসেন্ট্রেশন ক্যাম্পেই হত্যা করেছে প্রায় ১১ লাখ মানুষকে৷ ঐ ক্যাম্পে পোলিশ, রোমা, সোভিয়েত যুদ্ধবন্দি ছাড়াও আরো বহু দেশের যুদ্ধবন্দি ছিলেন, যাদের সবাইকে হত্যা করা হয়৷

হলোকস্ট-এ নিহতদের স্মরণে জার্মান পার্লামেন্টে বৃহস্পতিবার শোক প্রকাশ করা হয়েছে৷ স্পিকার নর্বার্ট লামার্ট বলেন, নাৎসি জার্মানির সেই ভয়াবহতার কথ ভুলে যাবার নয়৷ প্রতি বছরে এই দিনে জার্মান পার্লামেন্টে বক্তব্য রেখে থাকেন সেই গণহত্যা থেকে বেঁচে যাওয়া কোনো ব্যক্তি৷ এই বছরই প্রথম স্পিকার বক্তব্য রাখলেন৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন