হরমুজে ইরানি ড্রোন ধ্বংস: ট্রাম্প | বিশ্ব | DW | 19.07.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

মধ্যপ্রাচ্য

হরমুজে ইরানি ড্রোন ধ্বংস: ট্রাম্প

হরমুজ প্রণালীতে উত্তেজনার মধ্যে ইরানের একটি ড্রোন ধ্বংস করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প৷ তবে, এমন ঘটনার বিষয় ‘জানা নেই’ বলে দাবি ইরানের৷

বৃহস্পতিবার ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধজাহাজ থেকে হরমুজ প্রণালীতে গুলি করে ইরানের একটি ড্রোন নামানো হয়েছে৷ ঘটনার সময় ড্রোনটি যুদ্ধজাহাজের এক হাজার গজের মধ্যে চলে এসেছিল বলে মন্তব্য করেন তিনি৷

এর আগের দিন ইরান জানায়, হরমুজ প্রণালীতে বিদেশি একটি তেলবাহী জাহাজ আটক করেছে তারা৷ জাহাজটি পারস্য উপসাগর দিয়ে তেল চোরাচালান করছিল বলে অভিযোগ দেশটির৷ তবে, জাহাজটির বিস্তারিত জানায়নি ইরানের রেভ্যুলেশনারি গার্ড৷

ইরানের ড্রোন নামিয়ে আনার বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ইরানি ড্রোনকে বারবার সতর্ক করার পরেও না শোনায় যুদ্ধজাহাজ ‘ইউএসএস বক্সার প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা’ গ্রহণ করেছে৷ ‘‘ড্রোনটি জাহাজ এবং নাবিকদের নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছিল,’’ বলেন তিনি৷

ট্রাম্পের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেন, বৃহস্পতিবার হরমুজ প্রণালীতে ড্রোন ধ্বংসের বিষয় তিনি অবগত নন৷ ‘‘আজ কোনো ড্রোন ধ্বংসের তথ্য আমাদের কাছে নেই,’’ জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে এক বৈঠকের প্রাক্কালে বলেন জারিফ৷

ইরানের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্বাস আরাগসি এক টুইটে লেখেন, ‘‘হরমুজের কোথাও ইরানের ড্রোন ধ্বংস হয়নি৷ মনে হয়, ভুল করে নিজেদের ড্রোন ভূপাতিত করেছে তারা!’’

গত কয়েক মাস ধরে উপসাগরে উত্তেজনা বিরাজ করছে৷ এসময়টিতে পারস্য উপসাগর দিয়ে চলাচলকারী বেশ কয়েকটি জাহাজে অগ্নিকাণ্ডের  ঘটনা ঘটে৷ এসকল ঘটনায় ইরানকে দায়ী করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে ইরান৷

ইরানের পরমাণু সমৃদ্ধকরণ বিষয়ে দু'দেশের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে৷ ২০১৫ সালে পরমাণু চুক্তি থেকে সরে গিয়ে ইরানের উপর অবরোধ আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র৷ গত কয়েক মাস ধরে পারস্য উপসাগরে নিজেদের সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করছে দেশটি৷

এমবি/ (এপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন