স্বপ্ন পূরণের সুযোগ পেলেন জাপানের আবে | বিশ্ব | DW | 23.10.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জাপান

স্বপ্ন পূরণের সুযোগ পেলেন জাপানের আবে

দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের দল ও তাঁর সরকারে থাকা অন্য দল রবিবারের নির্বাচনে দুই-তৃতীয়াংশ আসনে জয়লাভ করেছে৷ ফলে আবের জন্য স্বপ্ন পূরণের পথ সহজ হলো৷

প্রধানমন্ত্রী আবে সংবিধানের একটি ধারায় পরিবর্তন আনতে চান৷ ‘আর্টিকেল ৯’ শীর্ষক ঐ ধারায় পরিবর্তনের মাধ্যমে তিনি দেশটির প্রতিরক্ষা বাহিনীকে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি প্রদান করতে চান৷ এর ফলে প্রতিরক্ষা বাহিনীর ক্ষমতা বাড়বে৷ উত্তর কোরিয়ার কাছ থেকে নিয়মিত হুমকি আসায় জাপানের নাগরিকদের নিরাপত্তা দিতে এই পরিবর্তন আনার প্রস্তাব করেছেন প্রধানমন্ত্রী আবে৷ তবে এই পরিবর্তনের জন্য জাপানের সংসদের দুই কক্ষে দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যের অনুমোদনের পাশাপাশি একটি গণভোটও আয়োজন করতে হবে৷ গত মে মাসে আবে যখন সংবিধানে পরিবর্তন আনার প্রস্তাব করেছিলেন তখন তিনি ২০২০ সালের মধ্যে তা বাস্তবায়নের পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিলেন৷

উত্তর কোরিয়া জাপানকে ‘ডুবিয়ে’ দেয়ার হুমকি দিয়েছে এবং সাম্প্রতিক সময়ে দেশটির উত্তরের দু'টি দ্বীপের উপর দিয়ে দু'টি ক্ষেপণাস্ত্র উড়িয়েছে৷

বিশ্লেষকরা বলছেন, উত্তর কোরিয়ার এই আচরণের কারণে প্রধানমন্ত্রী আবের নিম্নমুখী জনপ্রিয়তার সূচকের পালে আবার হাওয়া লাগে৷ কারণ নির্বাচনি প্রচারণার সময় তিনি উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়ার অঙ্গীকার করেন৷

রবিবার নির্বাচনে তাঁর জোট সরকারের দুই-তৃতীয়াংশের বেশি আসন পাওয়া নিশ্চিত হওয়ার পর তিনি এক সংবাদ সম্মেলনে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে লড়তে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার করেন৷ ‘‘উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র, পরমাণু ও অপহরণ সংক্রান্ত ইস্যুগুলোর সমাধান আমরা শক্ত ও দৃঢ় কূটনীতি দিয়ে করব'', বলেন তিনি৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আগামী মাসে জাপান সফর করবেন৷ তার পরেই উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে আবে কী পদক্ষেপ নেবেন তা জানা যাবে বলে আশা করা হচ্ছে৷

উল্লেখ্য, উত্তর কোরিয়া সহ অন্যান্য ‘সংকট’ মোকাবিলা করতে হাত আরও শক্ত করতে আগাম নির্বাচনের ডাক দিয়েছিলেন আবে৷ এবার বিজয় পাওয়ায় তিনি দেশটির সবচেয়ে বেশি সময় ক্ষমতায় থাকা নেতা হতে যাচ্ছেন৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন