সৌরভের বিজেপি যাওয়া নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে | বিশ্ব | DW | 28.12.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

সৌরভের বিজেপি যাওয়া নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী খুঁজতে ব্যস্ত— এই রাজনৈতিক জল্পনায় নতুন ইন্ধন জোগাচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির সাম্প্রতিক গতিবিধি।

রোববার বিকেল থেকে পশ্চিমবঙ্গের সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন, ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি কলকাতার রাজভবনে গিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে দেখা করতে। প্রায় দু ঘণ্টার বৈঠকের পর রাজভবন থেকে বেরিয়ে সৌরভ মুচকি হেসে সাংবাদিকদের বলেন, কোনো কিছু আগাম ভেবে না নেওয়াই ভালো। রাজ্যপালের সঙ্গে এটি ছিল নেহাতই সৌজন্য সাক্ষাৎ। ধনখড় পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল হয়ে আসার পর থেকে এখনো পর্যন্ত ইডেন গার্ডেন্স যাননি। তিনি সেখানে যেতে চেয়েছিলেন এবং সৌরভের সঙ্গেও দেখা করার ইচ্ছে জানিয়েছিলেন। তাই সৌরভই এসেছেন রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করতে।

যদিও সৌরভের এই যুক্তি অনেকেরই যথেষ্ট বিশ্বাসযোগ্য মনে হয়নি। কারণ, জগদীপ ধনকড় পশ্চিমবঙ্গেররাজ্যপাল নিযুক্ত হয়েছেন ২০১৯ সালের ৩০ জুলাই। মানে মাত্র দেড় বছর। এখনো এতটাও সময় ফুরিয়ে যায়নি, যে তিনি ইডেন গার্ডেন্স দেখতে ব্যস্ত হয়ে পড়বেন। ফলে জল্পনা শুরু হয়ে যায় যে তবে কি সৌরভ গাঙ্গুলি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন,‌ যে গুজব বেশ কিছুদিন ধরেই হাওয়ায় ভাসছে?‌ তিনিই কি তবে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী হতে চলেছেন, যে সম্ভাবনার কথা আগেও একাধিকবার শোনা গেছে?‌ এই মুহূর্তে, যখন এই রাজ্যে বিজেপির কোনও নেতাকেই মুখ্যমন্ত্রী পদের যোগ্য দাবিদার বলে নজরে পড়ছে না, সৌরভের এই রাজভবন যাওয়া রীতিমত আলোড়ন ফেলেছে। এতটাই, যে বামফ্রন্ট ক্ষমতায় থাকার সময় রাজ্যের এক বাম নেতা, যিনি সৌরভের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত, তিনি কোনও মন্তব্য করতেই রাজি হলেন না।

অডিও শুনুন 00:53

"এমন কিছু হবে বলে জানা নেই!": সায়ন্তন বসু

অবশ্য বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুও মনে করছেন, এত তাড়াতাড়ি এ নিয়ে কিছু বলার সময় আসেনি। তাঁর বক্তব্য, ‘‌‘‌এমন কিছু হবে বলে আমার জানা নেই। জল্পনাতে আমরা ইন্ধন দিচ্ছি না। যাঁরা দিচ্ছেন, নিজেদের দায়িত্বে দিচ্ছেন। সৌরভ বিজেপিতে স্বাগত, কিন্তু চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দলের পার্লামেন্টারি বোর্ড নেয়, বা দলের সভাপতি নেন। তবে সৌরভের মতো মানুষ যদি বিজেপিতে আসেন, তা হলে দল লাভবানই হবে। তাতে বাংলারও লাভ হবে। তবে সেটা সৌরভ দলে এলে, তবেই বলা যাবে যে, কতটা লাভ হবে।'‌'‌

কংগ্রেস নেতা অরুণাভ ঘোষ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী পদে সৌরভের যোগ্যতাকেই নাকচ করে দিলেন। তাঁর কটাক্ষ, ‘‌‘‌সৌরভ মুখ্যমন্ত্রী হবে!‌ ভাবা যায়!‌ রাজনীতির সঙ্গে সম্পর্কহীন একটা লোক মুখ্যমন্ত্রী হবে!‌ পাগল করে দেবে!‌ হাইকোর্টের চিফ জাস্টিস ভালো চালাচ্ছেন, কিন্তু তিনি মুখ্যমন্ত্রী হবেন!‌ বা প্রধানমন্ত্রী হবেন ভারতের!‌ নবাব পতৌদি প্রধানমন্ত্রী!‌ পশ্চিমবঙ্গ আসলে অশিক্ষিতে ভরে গেছে।'‌'‌ সৌরভের যোগ্যতা নিয়ে অরুণাভ ঘোষের মূল আপত্তি, ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গল, বা সিএবি–র কর্তৃত্ব নেওয়ার সময়ও সৌরভ রাজনৈতিক মদত নিয়েছিলেন। তাঁর একার সেই জোর ছিল না নিজের পায়ে দাঁড়ানোর।

অডিও শুনুন 01:14

"সৌরভ মুখ্য়মন্ত্রী হবে, ভাবা যায়!": অরুণাভ ঘোষ

কিন্তু তার পরেও জল্পনা থামছে না। সোমবার সৌরভ দিল্লির ফিরোজ শা কোটলা স্টেডিয়ামে প্রয়াত বিজেপি নেতা এবং মন্ত্রী অরুণ জেটলির মূর্তি উন্মোচনের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন। খেলার মাঠে রাজনৈতিক নেতার মূর্তি বসানোর প্রতিবাদে দিল্লি ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যপদ ছেড়ে দিয়েছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার বিষেণ সিং বেদি। তবে সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অমিত শাহ। একই মঞ্চে সৌরভ এবং অমিত শাহকে দখে জল্পনা আরো বেড়েছে।