সৌদি সেনাদের প্রশিক্ষণ দেবে জার্মানি | বিশ্ব | DW | 30.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

সৌদি সেনাদের প্রশিক্ষণ দেবে জার্মানি

জুলাই থেকে জার্মান সামরিক বাহিনীতে প্রশিক্ষণ নেবেন সাত সৌদি সেনা৷ ইয়েমেনে সৌদি আরবের নির্মম হামলার বিষয়টি উপেক্ষা করে এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার সমালোচনা করছেন দেশটির কয়েকজন আইনপ্রণেতা৷

জুলাই থেকে জার্মান সেনাবাহিনীতে সামরিক কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণে অংশ নিতে যাচ্ছেন পাঁচ সৌদি সেনাসদস্য৷ বিমান বাহিনীতে একই ধরনের প্রশিক্ষণ নেবেন আরো দু'জন৷ ২০২০ সালের জন্য আরেক প্রশিক্ষণের অংশ হিসেবে জার্মান ভাষার উপর দক্ষতা অর্জনে অংশ নেবেন আরো সাতজন৷ জার্মানির প্রতিরক্ষামন্ত্রী উরসুলা ফন ডেয়ার লাইয়েনের ২০১৬ সালের সফরে নেয়া এক চুক্তির অধীনে এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে৷ যদিও গত বছর তুরস্কের সৌদি দূতাবাসে সাংবাদিক জামাল খাশগজির হত্যাকাণ্ডের পর মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে অস্ত্র রপ্তানিতে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল জার্মানি৷ তবে ফরাসি ও ব্রিটিশ চাপে কিছু ক্ষেত্রে তা পরে তুলে নেয়া হয়৷ 

অস্ত্র রপ্তানি স্থগিত করার পেছনে ইয়েমেনে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের নেতৃত্বাধীন হামলাকেও বিবেচনায় নেয়া হয়৷ জাতিসংঘও সেখানকার পরিস্থিতিকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মানবিক সংকট হিসেবে অভিহিত করেছে৷

এমন প্রেক্ষাপটে সৌদি সামরিক কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ দেয়ার বিষয়টি নিয়ে জার্মানির রাজনীতিতে নতুন বিতর্ক তৈরি হয়েছে৷ এক টুইট বার্তায় এ নিয়ে সরকারের সমালোচনা করেছেন বিরোধী দলের আইন প্রণেতা ক্রিশ্চিয়ান ব্লেক্স৷ জার্মান চ্যান্সেলর, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি লিখেছেন, ‘‘(আঙ্গেলা) ম্যার্কেল, (হাইকো) মাস, ফন ডেয়ার লাইয়েন– এই খেলায় যারই হাত থাকুক না কেন, বিষয়টি অপমানজনক৷'' 

গত বছর জার্মানির সার্বিক অস্ত্র রপ্তানি কমে গেলেও  সৌদি আরবে তা বেড়েছে৷ দেশটির অর্থমন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৮ সালের অক্টোবর পর্যন্ত সেখানে মোট ১৬ কোটি ইউরো মূল্যের অস্ত্র রপ্তানি হয়েছে৷ যেখানে ২০১৭ সালের সারা বছরে মোট রপ্তানির পরিমাণ ছিল ৫ কোটি ইউরো৷

লুইস স্যান্ডার্স ফোর, এফএস

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন