সৌদি আরবে হুতি বিদ্রোহীদের হামলায় আহত ২৬ | বিশ্ব | DW | 12.06.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ইয়েমেন

সৌদি আরবে হুতি বিদ্রোহীদের হামলায় আহত ২৬

সৌদি আরবের একটি বিমানবন্দর লক্ষ্য করে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় অন্তত ২৬ জন আহত হয়েছেন৷

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আবহা বিমানবন্দর লক্ষ্য করে বুধবার ভোরে এই হামলার কথা জানিয়েছেন সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের মুখপাত্র কর্নেল তুর্কি আল-মালিকি৷

তিনি জানান, আহতদের মধ্যে দুই শিশুও রয়েছে৷ আহতদের আটজনকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে৷ হামলায় বিমানবন্দরের বিভিন্ন স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে৷

ইয়েমেন সীমান্তের কাছাকাছি বিমানবন্দরটির অবতরণ এলাকায় ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে৷ কয়েক ঘন্টা বিমান চলাচল বন্ধ থাকার পর সেখানে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরে আসে৷

‘‘সন্ত্রাসী হামলায় কী ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে, তা নির্ধারণে কাজ করছে নিরাপত্তা বাহিনী,'' বলেছেন আল-মালিকি৷‘বেসামরিক লোকজনকে' টার্গেট করে এ হামলাকে যুদ্ধাপরাধ হিসাবে অভিহিত করেছেন তিনি৷

আবহা বিমানবন্দরে হামলায় ‘ক্রুজ মিসাইল' ব্যবহার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে হুতি বিদ্রোহীরা৷ ‘আত্মরক্ষার জন্য' এই হামলা চালানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিদ্রোহীদের মুখপাত্র মোহাম্মদ আবদেল-সালাম৷

‘‘পাঁচ বছর ধরে ইয়েমেন অবরোধ ও সানা বিমানবন্দর বন্ধ রাখায় এবং রাজনৈতিক ও শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে না যাওয়ায় চালানো হয়েছে এ হামলা,'' এক টুইটে লিখেছেন তিনি৷

২০১৫ সাল থেকে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে আসছে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট৷ মধ্যপ্রাচ্যের এই বিদ্রোহী গোষ্ঠী ইরান থেকে অস্ত্র ও সমর্থন পেয়ে আসছে বলে অভিযোগ এই জোটের৷

আরো পড়ুন: সুইডেনে শুরু ইয়েমেনের শান্তি আলোচনা

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের অবরোধের মধ্যে ইয়েমেনের রাজধানী সানাসহ বিভিন্ন এলাকা দখলে রেখেছে হুতি বিদ্রোহীরা৷ এর মধ্যে সানা বিমানবন্দরও আছে তাদের নিয়ন্ত্রণে৷ গত কয়েক মাসে সৌদি আরবকে লক্ষ্য করে বেশ কিছু ড্রোন ও মিসাইল হামলা পরিচালনা করেছে তারা৷

এদিকে, বুধবারের হামলার নিন্দা জানিয়েছে সৌদি আরবের মিত্র দেশ বাহরাইন৷

এমবি/কেএম (ডিপিএ, এপি, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন