সৌদি আরবে সেনা পাঠানোর ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের | বিশ্ব | DW | 21.09.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সৌদি আরব-যুক্তরাষ্ট্র

সৌদি আরবে সেনা পাঠানোর ঘোষণা যুক্তরাষ্ট্রের

সৌদি আরবের আকাশ প্রতিরক্ষায় দেশটিতে সেনা পাঠানোর অনুমোদন দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প৷ সৌদি তেল ক্ষেত্রে সাম্প্রতিক হামলার প্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে৷

সৌদি আরব ও সংযুক্ত অরব আমিরাতে নতুন করে আরো সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র৷ শুক্রবার দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপার এই তথ্য জানিয়েছেন৷ তবে ঠিক কতজন সামরিক সদস্য আর কী পরিমান সরঞ্জাম পাঠানো হবে তা এখনও চূড়ান্ত হয়নি৷ সৌদি আরবের অনুরোধেই সিদ্ধান্তটি নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এসপার৷

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, "দেশটির অনুরোধের প্রেক্ষিতে প্রেসিডেন্ট সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা মোতায়েনের অনুমোদন দিয়েছেন৷ এর ধরন হবে প্রতিরক্ষামূলক আর প্রথমিক মনযোগ থাকবে আকাশ এবং মিসাইল প্রতিরক্ষায়৷”

গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের গুরুস্বপূর্ণ দুইটি তেলক্ষেত্রে ড্রোন হামলা চালানো হয়৷ এর ফলে দেশটির জ্বালানী তেলের সরবরাহ অর্ধেকে নেমে আসে৷ ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা এই ঘটনার দায় স্বীকার করলেও হামলার পেছনে ইরানের হাত আছে বলে দাবি করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরব৷

এদিকে সৌদি আরবের কাছে শান্তি প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা৷ শুক্রবার সকালে হুতি সুপ্রিম পলিটিক্যাল কাউন্সিলের প্রধান মাহদি আল মাসহাত জানান, তারা ড্রোন ও মিসাইল হামলায় বিরতি টেনেছেন৷ সৌদি আরব তাদের এই সংকেতের যথ৷যথ মূল্যুায়ন করবে, বিদ্রোহী দলটি এমন আশায় আছে৷

হুতি বিদ্রোহীদের দমনে ২০১৫ সাল থেকে ইয়েমেনে নির্মম হামলা চালিয়ে আসছে সৌদি আরব৷ যাকে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মানবিক সংকট হিসেবে অভিহিত করেছে জাতিসংঘ৷

এফএস/এআই (এপি, রয়টার্স, ডিপিএ, এএফপি) 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন