সোলেইমানি হত্যা: কী বলছে সৌদি আরব? | বিশ্ব | DW | 04.01.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সৌদি আরব

সোলেইমানি হত্যা: কী বলছে সৌদি আরব?

ইরানের কুদস বাহিনীর প্রধান কাসিম সোলেইমানি হত্যার পরিপ্রেক্ষিতে সবাইকে সংযমী হওয়ার আহবান জানিয়েছে সৌদি আরব৷ উত্তেজনা বাড়ে ইরানকে এমন কোনো পদক্ষেপ না নিতে বলেছে ফ্রান্স, জার্মানি ও চীন৷

মধ্যপ্রাচ্যে নিজেদের আধিপত্য প্রতিষ্ঠায় দীর্ঘদিন ধরেই শত্রুভাবাপন্ন ইরান ও সৌদি আরব৷ মার্কিন বলয়ে থাকা সৌদি আরবকে তাই কাসিম সোলেইমানি হত্যা নিয়ে খুব একটা গলা উঁচু করতে শোনা যায়নি৷ বরং দেশটির গণমাধ্যমে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র৷

সৌদি আরবের প্রভাবশালী পত্রিকা আরব নিউজ ঘটনার পর প্রথম পাতায় সোলেইমানির ছবি সম্বলিত একটি সম্পাদকীয় প্রকাশ করেছে৷ যার শিরোনাম ছিল ‘‘আর কাউকে হত্যা করতে পারবে না সে (সোলেইমানি)৷''

কুদস বাহিনীর প্রধান সোলেইমানিকে একজন বিজ্ঞ সমরবিদ হিসেবে ধরা হতো যিনি মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের আধিপত্য বিস্তার ও সৌদি আরবের প্রভাব কমিয়ে আনার কারিগর৷ আর তাই তাকে খুব একটা ভালো চোখে দেখেনি সৌদি সরকার৷

পত্রিকাটি গত বছরের মে মাসে সৌদি আরবে তেলের পাইপে ড্রোন হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রকে ইরানে ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক' চালানোর জন্যেও বলেছিল৷

এদিকে হত্যাকাণ্ডের পর সৌদি আরবের একজন কূটনীতিক উভয় পক্ষকেই সংযম প্রদর্শনের আহবান জানান বলে উল্লেখ করেছে এএফপি৷

তবে দেশটির পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আদেল আল-জুবেইর এক টুইটে বলেন ‘‘এ ঘটনায় সৌদি আরব উত্তেজনা কমিয়ে আনার বিষয়েই গুরুত্ব দিচ্ছে৷''

শান্ত থাকার আহ্বান

উদ্ভুত পরিস্থিতিতে সকল পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে জার্মানি, ফ্রান্স ও চীন৷

ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়েন-ইভেস লে ডারিন জানান, তিনি জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস ও চীনের একজন উর্ধ্বতন কূটনীতিক ওয়াং ই এর সাথে এ বিষয়ে আলোচনা করেছেন৷

‘‘আমরা একমত হয়েছি যে, ইরাকের সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও এ অঞ্চলের স্থিতিশীলতা রক্ষার বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ,'' বলেন তিনি৷

পাশাপাশি ইরানকে ভিয়েনা চুক্তি বজায় রেখে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায় এ ধরনের পদক্ষেপ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানান তিনি৷

আরআর/এফএস (এএফপি, রয়াটার্স)

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন