সেক্স ভিডিও ফাঁসে বিপাকে মাক্রোঁর দল | বিশ্ব | DW | 18.02.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

প্যারিস

সেক্স ভিডিও ফাঁসে বিপাকে মাক্রোঁর দল

প্যারিসের মেয়র পদে নিজের ঘনিষ্ঠজন বেঞ্জামিন গ্রিভউকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ৷ কিন্তু নির্বাচনের আগে গ্রিভউর সেক্স ভিডিও ফাঁস হওয়ায় পুরো দলই এখন মহাবিপাকে৷

ফাঁস হওয়া ভিডিওতে গ্রিভউকে হস্তমৈথুন করতে দেখা যায়৷ গত বৃহস্পতিবার ভিডিওটি টুইটারে ছড়িয়ে পড়ে৷ সেক্স ভিডিও ফাঁস হওয়ার পর দল থেকে পদত্যাগ করেন গ্রিভউ৷ ফলে নতুন মেয়র প্রার্থী বেছে নিতে হচ্ছে মাক্রোঁর দল এলআরইএমকে৷

দল থেকে সরে গেলেও গ্রিভউর দাবি, এক বছরের বেশি সময় ধরে তার ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে অপবাদ, মিথ্যা ও গুজব ছড়ানো হচ্ছে৷

‘‘এমনকি আমরা অজ্ঞাত হামলার শিকার হয়েছি এবং হত্যার হুমকি পেয়েছি৷''

যদিও সেক্স টেপটির সত্যতা তিনি অস্বীকার করেননি বলে জানায় ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যম বিএফএমটিভি৷

গ্রিভউর বিরুদ্ধে অন্য এক নারীকে মোবাইলে অশ্লীল বার্তা পাঠানোর অভিযোগও আছে৷

রাশিয়ার অভিনেতা পেট্র পাভলেনস্কি গ্রিভউর সেক্স টেপ ফাঁস করেছেন৷ রাশিয়ায় নানা অদ্ভুত কাণ্ডের জন্যে অতীতেও খবরের শিরোনাম হয়েছেন পাভলেনস্কি৷  মাক্রোঁ ক্ষমতায় আসার পর ফ্রান্সে রাজনৈতিক আশ্রয় পান তিনি৷

পাভলেনস্কি ফ্রান্সের রাজনীতি নিয়ে বানানো একটি সিনেমায় গ্রিভউর হস্তমৈথুনের দৃশ্য দেখান৷

পাভলেনস্কি বলেন, ‘‘গ্রিভউ পারিবারিক মূল্যবোধ নিয়ে কথা বলেন, পরিবারের জন্য তিনি প্যারিসের মেয়র হতে চান এবং সবসময় স্ত্রী ও সন্তানদের কথা বলেন৷ কিন্তু বাস্তবে তিনি পুরো উল্টো কাজ করেন৷''

গ্রিভউর সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্ক আছে এমন একজনের কাছ থেকে তিনি সেক্স টেপটি পেয়েছেন বলেও দাবি করেন৷ যদিও গুঞ্জন আছে, প্রতিশোধ নিতে মাক্রোঁর দল এলআরইএম থেকেই কেউ ওই টেপ ফাঁস করেছে৷

ফরাসি পুলিশ পাভলেনস্কি ও তার বান্ধবীকে আটক করেছে৷ কেউ কেউ বলেছে, পাভলেনস্কি তার বান্ধবীকে ব্যবহার করেই গ্রিভউর ভিডিও জোগাড় করেছেন, যদিও এখনো এই বক্তব্যের পক্ষে কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷

অতীতে ফ্রান্সের রাজনীতিকদের ব্যক্তিগত জীবন জনগণের চোখের আড়ালেই রাখা হতো৷ কিন্তু ইন্টারনেটের যুগে তা আর সম্ভব হচ্ছে না৷

গ্রিভউর সেক্স টেপ ফাঁস এবং দল থেকে পদত্যাগে স্বাভাবিকভাবেই বিপাকে পড়েছে এলআরইএম৷  আগামী মাসেই মেয়র নির্বাচন, নতুন প্রার্থীকে নিয়ে নির্বাচনি দৌড়ে নামতে হাতে খুব বেশি সময় নেই৷ মাক্রোঁ যেকোনো মূল্যে প্যারিসে দলের জয় চান৷

সেক্স টেপ ফাঁসের আগে এক জনমত জরিপে বর্তমান মেয়র এবং সোশ্যালিস্ট পার্টির প্রার্থী আনে হিদালগো সবচেয়ে এগিয়ে৷ রক্ষণশীল দলের প্রার্থী দুই নম্বরে এবং গ্রিভউ তিন নম্বরে৷

এলআরইএম-র নতুন প্রার্থী হচ্ছেন অ্যানিয়েস বুজ্যঁ৷ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দিয়ে মেয়র নির্বাচন করবেন তিনি৷

আন্দ্রেয়াস নোল/ এসএনএল

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন