সুদানে সামরিক সরকার ও বিক্ষোভকারীদের আলোচনা বাতিল | বিশ্ব | DW | 22.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

সুদানে সামরিক সরকার ও বিক্ষোভকারীদের আলোচনা বাতিল

দীর্ঘ প্রতিবাদের মুখে তিন দশক পর অবশেষে ক্ষমতাচ্যুত হলেন সুদানের প্রেসিডেন্ট ওমর আল বশির৷ দেশে গণতান্ত্রিক নির্বাচনের দাবিতে পথে নামা জনতা বর্তমানে ক্ষমতাসীন অন্তর্বর্তীকালীন সামরিক সরকারের সাথে সংলাপও বন্ধ রেখেছে৷

সুদানে গণতান্ত্রিক নির্বাচনের দাবিতে এখনো রাস্তায় আন্দোলন করছেন সাধারণ মানুষ৷ অন্যদিকে অন্তর্বর্তীকালীন সামরিক সরকার জানিয়েছে যে, এখনই নির্বাচন করা যাবে না৷ এর ফলে, আন্দোলনকারীরা আরো জোরদার আন্দোলনের আভাস দিচ্ছেন৷

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বাইরে একটি সভায় জনতার পক্ষে প্রতিবাদী জনতার প্রতিনিধি মোহামেদ আল আমিদ জানান, অন্তর্বর্তীকালীন সামরিক সরকারের সাথে সব রকমের সংলাপ তাঁরা বাতিল করেছেন৷

শুধু তাই নয়, অন্তর্বর্তীকালীন সরকারকে তাঁরা দেখছেন ক্ষমতাচ্যুত আল-বশিরের সরকারের প্রতিরূপ হিসেবে৷ সুতরাং, যতদিন না দেশ পরিচালনার ক্ষমতা নাগরিক কাউন্সিলের হাতে তুলে দেওয়া হয়, ততদিন আন্দোলন চালিয়ে যাবেন তাঁরা, জানিয়েছেন আল আমিদ৷

প্রস্তাবের অপেক্ষায় সামরিক সরকার

সুদানে ক্ষমতা বর্তমানে সামরিক বাহিনীর হাতে৷ নতুন সেনা প্রধান আবদেল ফাত্তাহ আল বুরহান রবিবার জানিয়েছেন, এক সপ্তাহের মধ্যেই তাঁরা আন্দোলনরতদের দাবির উত্তর দেবেন৷ সব রাজনৈতিক গোষ্ঠীর মতামতকে মাথায় রেখে একটি নাগরিক কাউন্সিল গঠনের কথা বিবেচনায় রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি৷

আল বুরহান আরো জানান, প্রতিবাদী জনতার কাছে কাউন্সিল সদস্যদের প্রস্তাবিত নামের তালিকা তাঁরা চেয়েছেন৷ কিন্তু নাগরিক কাউন্সিলে যাতে একজন সেনা প্রতিনিধি থাকে, সেই বিষয়টির ওপরও জোর দিয়েছেন তিনি৷

এদিকে, সামরিক বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে থাকা বর্তমান অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের বিষয়ে বিক্ষোভরতদের একাংশ এখনো সন্দিহান৷

বিক্ষোভে নেতৃত্ব দেয়া সুদানিজ প্রফেশনালস অ্যাসোসিয়েশন মনে করে, এই  সামরিক সরকারের সাথে ক্ষমতাচ্যুত  আল বশিরের সরকারের খুব একটা পার্থক্য নেই৷

এসএস/এসিবি (এএফপি, এপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন