সিরিয়ায় ৯৫ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী আসাদ | বিশ্ব | DW | 28.05.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সিরিয়াৈ

সিরিয়ায় ৯৫ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী আসাদ

সিরিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আবার জয়ী আসাদ। এই নিয়ে চতুর্থবার। তবে নির্বাচন নিয়ে প্রশ্ন অ্যামেরিকা, ইইউ-র।

আবার জয়ী আসাদ।

আবার জয়ী আসাদ।

সিরিয়ার পার্লামেন্টের স্পিকার বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিলেন, বাশার আল-আসাদ আবার জয়ী। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ৭৮ দশমিক ৬৬ শতাংশ ভোট পড়েছিল। তার মধ্যে ৯৫ দশমিক এক শতাংশ ভোট আসাদ পেয়েছেন।

সিরিয়া সরকারের মুখপাত্র বলেছেন, সিরীয়রা তাদের প্রেসিডেন্টকে বেছে নিয়েছেন। আসাদ সিরিয়ান আরব রিপাবলিকের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন।

এই বিপুল জয়ের ফলে আসাদ আরো সাত বছর সিরিয়া শাসনের অধিকার পেলেন। আসাদ সরকারের দাবি, এই নির্বাচনই দেখিয়ে দিল, এক দশক পুরনো সংঘাত সত্ত্বেও সিরিয়ার মানুষ স্বাভাবিকভাবেই কাজ করছেন। এই সংঘাতে কয়েক হাজার মানুষ মারা গেছেন। দেশের অর্ধেক মানুষ তাদের বাসস্থান ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন।

অ্যামেরিকা, ইইউ-র প্রশ্ন

অ্যামেরিকা ও ইইউ এই নির্বাচনের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। তাদের মতে, জাতিসংঘের প্রস্তাব মানা হয়নি। নির্বাচনে আন্তর্জাতিক তদারকির কোনো ব্যবস্থা ছিল না। যেখানে সরকারের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে, সেখানেই মানুষ ভোট দিতে পেরেছেন। কিন্তু সিরিয়ায় লড়াইয়ের ফলে বিপুল সংখ্যক মানুষ উদ্বাস্তু হয়ে চলে গিয়েছেন, তারা ভোটে অংশ নেননি বা নিতে চাননি।

অ্যামেরিকা ও ইউ-র কর্মকর্তাদের মতে, মাত্র তিনজন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হতে পেরেছেন। প্রায় ৪৮ জন প্রার্থী হওয়ার জন্য মনোনয়নপত্র পেশ করেছিলেন, কিন্তু তা খারিজ হয়ে যায়। আসাদের প্রধান প্রতিপক্ষ ছিলেন তারই সাবেক মন্ত্রী আবদুল্লাহ সালুম আবদুল্লাহ এবং সরকার স্বীকৃত বিরোধী গোষ্ঠাীর নেতা মাহমুদ আহমেদ।  ফলে এই বিরোধিতা ছিল অনেকটাই প্রতীকী।

আসাদ অবশ্য এই সমালোচনা উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, ''এই সব কথার কোনো গুরুত্ব নেই।''

জিএইচ/এসজি(এপি, রয়টার্স, ডিপিএ)

সংশ্লিষ্ট বিষয়