সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র হামলা, নিহত অর্ধশতাধিক | বিশ্ব | DW | 08.04.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সিরিয়া

সিরিয়ায় রাসায়নিক অস্ত্র হামলা, নিহত অর্ধশতাধিক

সিরিয়ার গুটার পূর্বাঞ্চলে বিদ্রোহীদের সবশেষ শক্তিশালী ঘাঁটি লক্ষ্য করে রাসায়নিক অস্ত্র হামলা চালিয়েছে আসাদ বাহিনী৷ হামলায় এ পর্যন্ত অর্ধশতাধিক মানুষ প্রাণ হারিয়েছে বলে জানিয়েছে ত্রাণ সংগঠনগুলো৷

হোয়াইট হেলমেটস স্বেচ্ছাসেবী উদ্ধারকারী গ্রুপটি টুইটারে লিখেছে, শনিবার হেলিকপ্টারে করে দৌমায় এই রাসায়নিক বোমা নিক্ষেপ করা হচ্ছে৷ নিহত হয়েছে অন্তত ৭০ জন৷ আহত অনেকে৷ টুইটারে তারা আরও লিখেছেন, যেসব স্থানে মানুষ আশ্রয় নিয়েছিল সেখানেও বোমা ফেলা হয়েছে, তাই শ্বাসরুদ্ধ হয়ে ঠিক কতজন প্রাণ হারিয়েছে তার সঠিক হিসাব দেয়া সম্ভব নয়৷


রাশিয়া সমর্থিত সিরিয়ার সরকারবাহিনী বিদ্রোহীদের শেষ শক্তিশালী ঘাঁটিটি নস্যাৎ করতে এই হামলা চালাচ্ছে৷ হামলায় ঠিক কতজন প্রাণ হারিয়েছেন, তার সঠিক সংখ্যা জানা যায়নি৷ বিভিন্ন ত্রাণ সংগঠন ভিন্ন ভিন্ন পরিসংখ্যান দিয়েছেন৷ কেউ বলছেন ২৫, কেউ ৩৫ আবারও কেউবা ৪৯৷ আহতের সংখ্যা পাঁচ শতাধিক বলে জানিয়েছে বেশিরভাগ সংগঠন৷ দৌমা হাসপাতালেও ক্লোরিন বোম ফেলা হয়েছে, যেখানে মারা গেছে ছ'জন৷


সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা সানা যথারীতি এইসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে৷ তারা প্রতিবেদনে বলছে, যেসব সংগঠন সন্ত্রাসীদের মদদ দেয়, তারাই বানোয়াট খবর দিচ্ছে৷
মার্কিন পররাষ্ট্র অধিদপ্তর শনিবার রাতে জানিয়েছে, তারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছে এবং যদি রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগ করা হয়ে থাকে, এর জন্য দায়ী হবে আসাদ সরকার এবং এই সরকারকে যারা মদদ দিচ্ছে৷ ''


সিরিয়ায় সাত বছরের গৃহযুদ্ধে গুটাতে সবচেয়ে ভয়াবহ হামলা চালানো হচ্ছে৷ এই একটি এলাকাতেই গত কয়েক মাসের হামলায় এ পর্যন্ত ১৬০০ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে বলে জানিয়েছে মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস৷
এপিবি/ডিজি (এপি, এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন