সিরিয়ার পূর্ব গুটায় ছয়দিনে ৪২৬ জন নিহত | বিশ্ব | DW | 23.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সিরিয়া

সিরিয়ার পূর্ব গুটায় ছয়দিনে ৪২৬ জন নিহত

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের অনতিদূরে অবস্থিত পূর্ব গুটায় গত রবিবার রাত থেকে বোমাবর্ষণ করছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী ও রাশিয়া৷ এতে এখন পর্যন্ত ৪২৬ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে৷

এছাড়া আহত হয়েছেন প্রায় দুই হাজার জন৷ নিহতদের মধ্যে ৯৮ জন শিশুও রয়েছে৷ শুক্রবার ষষ্ঠদিনের মতো বোমাবর্ষণ চলছে

বোমাবর্ষণ রুখতে বৃহস্পতিবার জাতিসংঘে ৩০ দিনের যুদ্ধবিরতির একটি প্রস্তাব আনা হয়েছিল৷ কিন্তু রাশিয়ার কারণে সেটি পাস করা যায়নি৷ তবে শুক্রবার দিনের শেষে আবারও একটি প্রস্তাবে ভোটাভুটি হওয়ার কথা রয়েছে৷ অবশ্য রাশিয়াকে নতুন প্রস্তাবের পক্ষে আনা সম্ভব হয়েছে কিনা তা জানা যায়নি৷ এই প্রস্তাবে শব্দগত কিছু পরিবর্তন আনা হয়েছে৷ যেমন বলা হয়েছে, জাতিসংধের নিরাপত্তা পরিষদ যুদ্ধবিরতির ‘দাবি’ জানাচ্ছে৷ আগের প্রস্তাবে দাবির জায়গায় ‘সিদ্ধান্ত’ শব্দটি ছিল৷ এছাড়া নতুন প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ইসলামিক স্টেট ও আল-কায়েদার সঙ্গে জড়িত ‘ব্যক্তি, গোষ্ঠী ও সংগঠন’এর ক্ষেত্রে যুদ্ধবিরতি প্রযোজ্য হবে না৷ আগের প্রস্তাবে শুধু ঐ দুই জঙ্গি গোষ্ঠীর নাম বলা হয়েছিল৷

উল্লেখ্য, পূর্ব গুটা হচ্ছে রাজধানী দামেস্কের কাছে থাকা সরকারবিরোধীদের শেষ ঘাঁটি৷ সেখান থেকে দামেস্কের সাধারণ নাগরিক অধ্যুষিত এলাকায় রকেট হামলা হচ্ছে বলে জানান জাতিসংঘে নিযুক্ত সিরিয়ার প্রতিনিধি বাশার আল-জাফরি৷ এসব হামলায় গত ছয়দিন ১৬ জন সাধারণ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে বলে সরকারি টেলিভিশনে জানানো হয়েছে৷

পূর্ব গুটায় এখন যে অভিযান চলছে তাকে অনেকে ২০১৬ সালে আলেপ্পোতে যে অভিযান চলেছিল তার সঙ্গে তুলনা করছেন৷ পূর্ব গুটায় প্রায় চার লক্ষ নাগরিকের বাস৷ জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস ঐ অঞ্চলের মানুষদের দুর্দশার কথা বোঝাতে গিয়ে ‘পৃথিবীর নরক’ শব্দযুগল ব্যবহার করেছেন৷

পূর্ব গুটার ডুমা শহরের বাসিন্দা আবু মুস্তফা বলেন, ‘‘জাতিসংঘ বলছে তারা উদ্বিগ্ন, ফ্রান্স নিন্দা জানিয়েছে৷ কিন্তু এতে আমাদের কোনো লাভ হচ্ছে না৷’’

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন