সাহসী ও সত্যবাদী ক্লিফ রবার্টসন চলে গেলেন | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 11.09.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সাহসী ও সত্যবাদী ক্লিফ রবার্টসন চলে গেলেন

চলে গেলেন হলিউডের অস্কার বিজয়ী প্রখ্যাত অভিনেতা ক্লিফ রবার্টসন৷ শনিবার নিউ ইয়র্কের স্টোনি ব্রুক ইউনিভার্সিটি অব মেডিকেল সেন্টারে ৮৮ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি৷

default

ক্লিফ রবার্টসন

তার একদিন আগেই নিজের ৮৮তম জন্মদিনটি পালন করেছেন এই প্রখ্যাত অভিনেতা৷ বিগত শতাব্দীর পঞ্চাশ এবং ষাটের আমলে অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতা ছিলেন ক্লিফ রবার্টসন৷ ১৯৬৮ সালে বিখ্যাত ‘চার্লি' ছবিতে অভিনয় করে অস্কার জেতেন তিনি৷ সেই ছবিতে এক মানসিক রোগীর চরিত্রে অভিনয় করেন রবার্টসন৷ কীভাবে একজন মানসিক রোগী দুর্দান্ত জিনিয়াসে পরিণত হতে পারে তা সুনিপুণভাবে ফুটিয়ে তুলেছিলেন রুপালি পর্দায়৷ ‘পিটি ১০৯' ছবিতে প্রয়াত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডির চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি৷ এছাড়া ‘স্পাইডার ম্যান থ্রি' ছবিতেও তার অভিনয় মনে রাখার মত৷ সিনেমার পাশাপাশি ছোট পর্দাতেও অভিনয় করে প্রশংসা কুড়ান ক্লিফ রবার্টসন৷ পঞ্চাশের দশকে ‘প্লেহাউস নাইনটি' ড্রামা তাঁকে এনে দিয়েছিলো টেলিভিশনের সর্বোচ্চ পুরস্কার অ্যামি অ্যাওয়ার্ড৷

তবে অভিনেতা হিসেবে ক্লিফ রবার্টসন হলিউডে যত বেশি স্মরণীয় থাকবেন তার চেয়েও বেশি স্মরণীয় থাকবেন তিনি কুখ্যাত হলিউডগেট কেলেঙ্কারি ফাঁস করে দেওয়ার ঘটনায়৷ মার্কিন রাজনীতির ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারির অনুকরণে হলিউডের এই ঘটনার নামকরণ করা হয়৷ প্রভাবশালী কলাম্বিয়া স্টুডিওর তৎকালীন প্রধান ডেভিড বেগেলম্যানের এক জোচ্চুরি ফাঁস করে দিয়েছিলেন ক্লিফ রবার্টসন৷ দশ হাজার ডলারের ব্যাংকের চেকে রবার্টসনের নাম জাল করেছিলেন হলিউডের প্রতাপশালী ব্যক্তি ডেভিড বেগেলম্যান৷ অনেকেই হয়তো এই ঘটনা চেপে যেতো, কিন্তু নিজের ক্যারিয়ারকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলেও সত্যকে আড়াল করতে দেননি রবার্টসন৷ এর ফলে পরবর্তী বছরগুলোতে প্রচন্ড চাপের মুখে পড়েন হলিউডের এই নামকরা অভিনেতা৷ কিন্তু নিজ গুণেই আবারও হলিউডে স্বমহিমায় ফিরে আসেন ক্লিফ রবার্টসন৷ তাই কেবল অভিনেতা নয়, সাহসী ও সত্যবাদী হিসেবেও হলিউডে একটি আলাদা অবস্থান ছিল এই গুণী শিল্পীর৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

বিজ্ঞাপন