সামরিক মহড়ার ফলে পরিবেশ সংরক্ষণ! | অন্বেষণ | DW | 15.08.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

সামরিক মহড়ার ফলে পরিবেশ সংরক্ষণ!

প্রচলিত ধারণা অনুযায়ী সামরিক মহড়া পরিবেশের ক্ষতি করে৷ জার্মানিতে সামরিক বাহিনীর জমি কিন্তু নানাভাবে পরিবেশ সংরক্ষণের ক্ষেত্রে ইতিবাচক ভূমিকা পালন করছে৷ এমনকি বিরল উদ্ভিদ ও প্রাণীও সেখানে সুরক্ষা পাচ্ছে৷

বিপদসঙ্কুল পরিবেশ

ট্যাংক চলাচল ও গোলাবারুদের মহড়ার কারণে সামরিক বাহিনীর প্রশিক্ষণ ক্ষেত্রে প্রকৃতি সম্পর্কে কথোপকথন চালানো জটিল কাজ বটে৷ পরিবেশবিদরা কাজ শুরু করার আগে এক সার্চ পার্টি গোটা এলাকা ঘুরে ঘাসের আড়ালে কোনো সম্ভাব্য বিস্ফোরকের ঝুঁকি দূর করে৷ জার্মান সামরিক বাহিনীর বিশেষজ্ঞরা সব সময়ে সঙ্গে থাকেন৷

তাঁরা এক ক্ষেপণাস্ত্র খুঁজে পেয়েছেন৷ সেটির অবস্থান চিহ্নিত করার পর বোমা নিষ্ক্রিয় করতে বিশেষজ্ঞরা সেখানে পৌঁছাবেন৷ বাউমহোল্ডার মিলিটারি ট্রেনিং এরিয়ার ক্যাপ্টেন ফ্রাংক সিমার বলেন, ‘‘সাবধানে অনুসন্ধান চালাতে হয়, কারণ আমরা ছোট ২০ মিলিমিটার গোলাগুলি থেকে শুরু করে বড় কামান ও বিস্ফোরক ব্যবহার করি৷ ছোট আকারের গোলাগুলির তুলনায় বোমার খোঁজ করা অনেক সহজ কাজ৷ ভুলবেন না, আমরা ৮০ বছর ধরে সৈন্যদের প্রশিক্ষণের এই জায়গাটি ব্যবহার করছি৷ তাই এখানে নানা ধরনের জিনিস পাবেন৷''

বিচ্ছিন্নতার পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া

৮০ বছর ধরে সামরিক কার্যকলাপের ফলে বাউমহোল্ডার এলাকায় বৈচিত্র্যময় এক নিসর্গ সৃষ্টি হয়েছে৷ জংলি জড়িবুটি ভরা ঘাসজমির পাশাপাশি জঙ্গলও রয়েছে৷ জীববৈচিত্র্যের জন্য আদর্শ পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে৷ বাউমহোল্ডার মিলিটারি ট্রেনিং এরিয়ার এলমার ফিংক মনে করিয়ে দেন, ‘‘ঘাসজমি অত্যন্ত মূল্যবান, কারণ অন্য কোথাও সহজে এমনটা দেখা যায় না৷ কোনো আবাদী জমি নেই৷ তাই কোনো কীটনাশক, পুষ্টি বা সারও নেই৷ শুধু সামরিক মহড়ার জন্য জায়গাটি ব্যবহার করা হয়৷''

প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণ করতে যে সরঞ্জামের প্রয়োজন, সেনাবাহিনীর কাছে সে সবই রয়েছে৷ যেমন এই সাঁজোয়া গাড়িটি কাজে লাগিয়ে খোলা জায়গা খালি রাখা হয়, যাতে সে সব জায়গা আগাছায় ভরে না যায়৷ এই যান চললে আগাছা ও ছোট গাছ নষ্ট হয়ে যায়৷

প্রকৃতির বিরল বিকাশ

জার্মানিতে সামরিক মহড়ার জন্য ১,৪০০ বর্গ কিলোমিটার জমি ধার্য করা হয়েছে৷ নাবু নামের পরিবেশবাদী গোষ্ঠীর উদ্যোগে এক গবেষণায় এক বিস্ময়কর ফলাফল পাওয়া গেছে৷ সামরিক বাহিনীর জমিতে হেভি মেটাল ও অবশিষ্ট কেরোসিন তেলের মতো দূষণকারী পদার্থ থাকা সত্ত্বেও পরিবেশগত দিক থেকে এই সব জমি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷

ভিডিও দেখুন 04:14

পরিবেশের ক্ষতি না করে মহড়ার চেষ্টা

প্রকৃতি ও জীববৈচিত্র্য সংগঠনের টিল হফ বলেন, ‘‘এই সব জায়গার পরিস্থিতি সত্যি অভিনব৷ মহড়ার ফলে জোড়াতালি দেওয়া এক পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে৷ কিছু সাময়িক পরিবর্তনের ফলে পরিবেশগত দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বিঘ্ন ঘটেছে৷ যেখানে মাটি সরিয়ে ফেলা হয়েছে, সেখানে বিরল প্রজাতির উদ্ভিদ ও প্রাণী বেড়ে উঠতে পারে৷ এগুলিকে ‘পাইওনিয়ার সাইট' বলা হয়৷''

সামরিক বাহিনীর ইকোলজিস্ট হিসেবে ভিলফ্রিড গ্রোটেন মনে করেন, সাঁজোয়া গাড়ি যে সব জায়গা ধ্বংস করে, সেখানে নতুন বিচ্ছিন্ন পরিবেশ সৃষ্টি হয়৷ ট্যাংকের গতিপথ ও বোমার গহ্বরে ছোট আকারের পুকুর সৃষ্টি হয়, যেখানে ব্যাং ও গোসাপের বংশবৃদ্ধি ঘটে৷ গ্রোটেন বলেন, ‘‘ট্যাংকের গতিপথে আমরা যে ক্ষয়ক্ষতি দেখতে পাই, তা প্রকৃতির সংরক্ষণের ক্ষেত্রে বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ৷ একমাত্র সামরিক মহড়াস্থলেই এমনটা দেখা যায়৷ সেখানে কোনো নির্দিষ্ট জায়গায় পরিবেশ সংরক্ষণ ঘটছে না, জীবজগতের আবাস প্রতিনিয়ত বদলে চলেছে৷ সামরিক বাহিনী কিছু এলাকা নিয়মিত কাজে লাগায় না৷ সেখানে প্রকৃতি অরগ্যানিক প্রক্রিয়ায় বিকশিত হয়৷''

ভেড়া চরানোর সুফল

যে সব জায়গা কম ব্যবহার করা হয়, সেখানে ভেড়া চরানো হয়৷ সারা বছর ধরে সামরিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কয়েক হাজার ভেড়া ঘুরে বেড়ায়৷ এলমার ফিংক বলেন, ‘‘ভেড়া আসলে খুবই উপযোগী প্রাণী, কারণ সেগুলি সব জায়গায় পৌঁছে যায়৷ ঝোপের নীচে, জঙ্গলের এমন অংশে, যেখানে আমরা যেতে পারি না৷ যন্ত্রও পারে না৷ ভেড়ার বিচরণের ফলে প্রকৃতির প্রয়োজন অনুযায়ী পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়৷''

এই সব ভেড়া বেশ কয়েক বছর ধরে গ্রীষ্মকালে সামরিক এলাকায় চরে বেড়িয়েছে এবং সেখানকার পরিস্থিতির সঙ্গে নিজেদের মানিয়ে নিয়েছে৷ মেষপালক হিসেবে কার্লহাইনৎস কিংকেল বলেন, ‘‘সাধারণত যখনই গোলাগুলি চলে, এমনকি বিস্ফোরণও ঘটে, ভেড়াগুলি তার সঙ্গে মানিয়ে নেয়৷ ভয় পেলে গায়ে গা ঠেকিয়ে দাঁড়িয়ে পড়ে৷''

জার্মানিতে মূলত ব্যাপক কৃষিকাজের কারণে বিশাল এলাকা জুড়ে প্রাকৃতিক পরিবেশ নষ্ট হয়ে গেছে৷ সেই প্রেক্ষাপটে সামরিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের জংলি জমি ইকোলজির দৃষ্টিভঙ্গি থেকে অত্যন্ত মূল্যবান৷ বোমা ও গ্রেনেড সত্ত্বেও এই অনন্য পরিবেশ বিশেষ সুরক্ষা পায়৷

ইয়ুর্গেন শ্নাইডার/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন