সাপের ভয়ে ঘরবন্দি প্রেসিডেন্ট | বিশ্ব | DW | 20.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

সাপের ভয়ে ঘরবন্দি প্রেসিডেন্ট

লাইবেরিয়ার প্রেসিডেন্টকে একরকম গৃহবন্দিই হতে হয় অদ্ভুত এক কারণে৷ প্রেসিডেন্টের কার্যালয়ে যাওয়া একেবারে বন্ধ৷ কারণ, দু'টি সাপ!

গত কয়েকদিন ধরেই লাইবেরিয়ার প্রেসিডেন্ট জর্জ উইয়াহকে তাঁর অফিসে দেখা যাচ্ছে না৷ তিনি বাসা থেকেই পালন করছেন রাষ্ট্রপতির সমস্ত দায়িত্ব৷

কিছুদিন আগে তাঁর অফিসঘর থেকে পাওয়া যায় দু'টি সাপ৷ তাই আফ্রিকার দেশ লাইবেরিয়ার রাষ্ট্রপতিকে অফিসের কাজ করতে হচ্ছে ঘরে বসে৷

প্রেসিডেন্টের অফিসের রিসেপশনের পাশের দেওয়ালের গায়ে ছিল একটি ছোট গর্ত৷ সেই গর্ত থেকে দু'টি কালো সাপকে বেরোতে দেখা গেলে ব্যাপক হইচই পড়ে যায়৷

রাষ্ট্রপতির ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি স্মিথ টোবি জানান, যতদিন না গোটা অফিস বাড়ির নিরাপত্তা পুনর্বিবেচনার কাজ শেষ হচ্ছে, ততদিন অফিসে আসবেন না প্রেসিডেন্ট উইয়াহ৷

লাইবেরিয়ায় বেশ কিছু বিষাক্ত সাপের বসবাস৷ স্বাভাবিকভাবেই দেশের প্রেসিডেন্টের নিরাপত্তা নিয়ে কোনো ঝুঁকি নিতে চান না কেউ৷

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, সোমবারই কাজে ফিরবেন সাবেক ফুটবলার উইয়াহ৷ নিরাপত্তা যাচাইয়ের কাজ প্রায় শেষ৷

উল্লেখ্য, জর্জ উইয়া রাজনীতিতে আসার আগে ছিলেন একজন জনপ্রিয় ফুটবলার৷

১৯৯৫ সালে আফ্রিকার প্রথম ফুটবলার হিসেবে ফিফা'র বর্ষসেরা খেলোয়াড় হন তিনি৷ এখনো আফ্রিবার আর কোনো ফুটবলার এই স্বীকৃতি পাননি৷ ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে প্রেসিডেন্ট হিসাবে যাত্রা শুরু করেন জর্জ উইয়াহ৷

এসএস/এসিবি (এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন