সহিংসতা, ভোট বর্জন, অভিযোগের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ভোট গ্রহণ | বিশ্ব | DW | 30.12.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮

সহিংসতা, ভোট বর্জন, অভিযোগের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ভোট গ্রহণ

সহিংসতা, ভোট বর্জন, অভিযোগের মধ্য দিয়ে শেষ হলো একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ৷ বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টায় শুরু হয়ে ভোটগ্রহণ চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত৷  

নির্বাচন বর্জন

পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া, ভোট কারচুপি ও জালিয়াতির অভিযোগ তুলে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় ১৭ জন প্রার্থী নির্বাচন বর্জন করেছেন৷ জামায়াতে ইসলামীর যেসব প্রার্থী ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন ঐ সব আসনসমূহে তারা নির্বাচন প্রত্যাখ্যান ও বয়কট করার ঘোষণা দিয়েছেন৷

নৌকার জয় হবে: প্রধানমন্ত্রী

ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, নৌকার জয়ের বিষয়ে তিনি দৃঢ়ভাবে ‘আত্মবিশ্বাসী’৷সকাল ৮টায় ভোটের শুরুতেই ঢাকার সিটি কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে নিজের ভোটটি দেন শেখ হাসিনা৷ এ কেন্দ্রে তিনিই ছিলেন প্রথম ভোটার৷

ভোট দেওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় শেখ হাসিনা সাংবাদিকদের বলেন, “নৌকার জয় হবে৷ স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির জয় হবেই৷” ফলাফল মেনে নেবেন কিনা জানতে চাইলে শেখ হাসিনার জবাব, “অবশ্যই মেনে নেবো৷ আমরা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করি৷ জনগণকে বিশ্বাস করি। জনগণ যে রায় দেবে, মেনে নেবো৷”

ঢাকার সিটি কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে নিজের ভোটটি দেন শেখ হাসিনা

ঢাকার সিটি কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে নিজের ভোটটি দেন শেখ হাসিনা

ড. কামাল হোসেন যা বললেন

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন রাজধানীর বেইলি রোডে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন৷ সকাল পৌনে ৯টায় স্ত্রী হামিদা হোসেন ও মেয়ে সারা হোসেনকে নিয়ে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেন তিনি৷

দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে কামাল হোসেন বলেন, ‘‘রাতেই নাকি বিভিন্ন জায়গায় ভোট হয়েছে৷ এগুলো দুঃখজনক, লজ্জাজনক৷ সারা দেশ থেকে যে খবর পাচ্ছি, তা উদ্বেগজনক৷ এটা শহীদদের সঙ্গে বেইমানি, বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে বেইমানি করা৷’’

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্য

ঠাকুরগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দেওয়ার পর গণমাধ্যমকর্মীদের মুখোমুখি হয়ে বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন,‘‘ভোটাররা যদি ভোট দিতে পারেন, তাহলে নিঃসন্দেহে একটা ভোট বিপ্লব ঘটবে৷ সে ক্ষেত্রে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বিজয় অনিবার্য৷’’

ইভিএম

এবারই প্রথম ছয়টি আসনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএম ব্যবহার করে নির্বাচন হয়েছে৷ সেগুলোর ফল পাওয়া যাবে বিকেল ৫টা থেকে ৬টার মধ্যে৷ এছাড়া রাত ১০টা থেকে ১২টা নাগাদ মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া যাবে কারা গঠন করতে যাচ্ছে পরবর্তী সরকার৷

ঢাকা ১৩ আসনের বেগম নূরজাহান মেমোরিয়াল উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে পুরুষদের কেন্দ্রের ৮ নম্বর কক্ষে একটি ইভিএম মেশিন সকাল থেকে চালু হয়নি৷ ফলে ওই কক্ষের ৭৭৯ জন ভোটারের একজনও এখন পর্যন্ত ভোট দিতে পারেননি৷

নির্বাচন হচ্ছে ৩০০ আসনের মধ্যে ২৯৯ আসনে৷ গাইবান্ধা-৩ আসনে একজন প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে সেখানকার নির্বাচন পিছিয়ে গেছে৷ ওই আসনে নির্বাচন হবে ২৭ জানুয়ারি৷

বিএনপি এবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ব্যানারে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি করলেও তারা শেষ পর্যন্ত দলীয় সরকারের অধীনেই নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে৷ দলীয় সরকারের অধীনে সব দলের অংশগ্রহণে গত ২৮ বছরে এবারই প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে৷

এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ মোট ৩৯টি দল অংশ নিচ্ছে৷ আওয়ামী লীগ মহাজোটের মাধ্যমে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে৷ জামায়াতের নিবন্ধন না থাকায় তাদের প্রার্থীরা বিএনপি'র ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে অংশগ্রহণ করছে৷

তবে জাতীয় পার্টি মহাজোটের অংশ হলেও দলীয় প্রতীক লাঙ্গল নিয়েই তাঁরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে৷ বিজেপি'র একমাত্র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু সাইকেল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছেন৷ জোটের অন্য সব দলের প্রর্থীরা আাওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকেই নির্বাচন করছেন৷

শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন ১ হাজার ৮শ' ৬১ জন প্রার্থী, যাদের মধ্যে দলীয় ১ হাজার ৭শ' ৩৩ জন এবং  বাকি ১২৮ জন স্বতন্ত্র৷ নারী প্রার্থী ৬৯ জন৷

আদালতের নির্দেশনায় ধানের শীষের প্রার্থী কমেছে ১৬ জন৷ আওয়ামী লীগ ও শরিকদের মিলিয়ে নৌকার ২৭২ জন প্রার্থী এবং বিপরীতে ধানের শীষের প্রার্থী সংখ্যা ২৮২ জন৷

এর আগে, শনিবার নির্বাচনে সবার জন্য নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সর্বস্তরের সদস্যদের নির্দেশ দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা৷

আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তায় মাঠে রয়েছে সেনাবাহিনী৷ রাজধানীর আজিমপুরে অস্থায়ী সেনা ক্যাম্প পরিদর্শনের সময় ভোটারদের নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ৷

নির্বাচনে সশস্ত্র বাহিনীর ৫০ হাজার সদস্যসহ প্রায় আট লাখ পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার ও গ্রাম পুলিশ দায়িত্ব পালন করছেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন