1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Bangladesch | Khaled Muhiuddin Asks 041 | Screenshot
ছবি: DW

‘সরকারের মদতেই হচ্ছে ভাস্কর্যবিরোধী আন্দোলন'

৪ ডিসেম্বর ২০২০

বাংলাদেশে চলমান ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক প্রসঙ্গে এমন মন্তব্য করলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী৷

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%B8%E0%A6%B0%E0%A6%95%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%AE%E0%A6%A6%E0%A6%A4%E0%A7%87%E0%A6%87-%E0%A6%B9%E0%A6%9A%E0%A7%8D%E0%A6%9B%E0%A7%87-%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B0%E0%A7%8B%E0%A6%A7%E0%A7%80-%E0%A6%86%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A6%E0%A7%8B%E0%A6%B2%E0%A6%A8/a-55827834

ডয়চে ভেলে বাংলার সাপ্তাহিক ইউটিউব টকশো ‘খালেদ মুহিউদ্দীন জানতে চায়'-এর এবারের পর্বে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী এবং সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এ আরাফাত৷ এবারের পর্বের প্রশ্ন ছিল, মূর্তি বা ভাস্কর্যের মতো ইস্যুগুলো কি দেশের মূল সমস্যাগুলো আড়ালে রাখছে?

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী সরাসরি অভিযোগের তির ছোঁড়েন সরকারেরদিকে৷ তিনি বলেন, ‘‘পাগলকে দিয়ে সাঁকো নাড়াচ্ছে সরকার রাজনৈতিক সুবিধার জন্য৷ খাদ্য, ওষুধের এমন দাম যেখানে (বাড়ছে), মানুষ সঠিক স্বাস্থ্যব্যবস্থা পাচ্ছে না, সেখানে তখনই হচ্ছে এমন সরকারপ্রণোদিত বিতর্ক৷ ইমামসাহেবরাই বা কী করে এই ফাঁদে পা দিলেন, তা আমি জানি না৷ ধর্ম থাকবে আমাদের অন্তরে, উপাসনালয়ে, মন্দির মসজিদে৷ এর সাথে রাজনীতি মেশালে সুবিধাবাদী শ্রেণির লাভ হলেও আসলে ধর্মের ক্ষতি৷ ইসলাম সাম্যের ধর্ম, বাকস্বাধীনতার ধর্ম৷ অন্য ধর্মের প্রতি সহনশীল অবস্থার ধর্ম৷ আজকের এই আন্দোলন ভুল হচ্ছে, ইসলামোফোবিয়াকে উসকে দেবে৷ ইসলামকে প্রাগৈতিহাসিক ধর্মে পরিণত করবে৷''

 

সঞ্চালক প্রশ্ন রাখেন যে, আসলেই কার পাতা ফাঁদে পা দিচ্ছেন ধর্মীয় নেতারা বা আদৌ দিচ্ছেন কি? উত্তরে ডা. চৌধুরী বলেন, ‘‘সরকারি মদতে হচ্ছে এটা৷ অ্যাটেনশন ডাইভার্শন করা হচ্ছে৷ জনগণ একদিকে আন্দোলন করছে দেশের গতি ফেরানোর জন্য৷ এতদিন যে ছাত্রলীগ বদনামের ভাগী হয়ে ছিল, সে উঠে আসছে আবার৷ অন্যদিকে দুর্নীতিতে বাংলাদেশ পুরোপুরি জড়ানো৷ সেটাকে ভুলিয়ে দেবার জন্যই এই আন্দোলন করা হচ্ছে৷''

সরকারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগকে খারিজ করলেন সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এ আরাফাত৷ তার বক্তব্য, ‘‘আওয়ামী লীগের বিভিন্ন স্তরের সকল মানুষই মৌলবাদী গোষ্ঠীর আচরণের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছে৷ দল হিসাবেও আওয়ামী লীগ এর বিপক্ষে৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আওয়ামী লীগের যে সকল অ্যাক্টিভিস্টরা রয়েছেন, তারাও এর প্রতিবাদ করেছেন৷ এখানে নিশ্চুপ বলতে কেবল বাম দলেরা ও বিএনপি৷ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর মতো কয়েকজন কথা বলেছেন৷ কিন্তু বাকিরা চুপ৷ মৌলবাদীরা আওয়ামী লীগের প্রতিপক্ষ, এরা বেশি বাড়লে আওয়ামী লীগই তাদেরকে প্রতিহত করে৷''

এবারের পর্বে এছাড়াও আলোচিত হয় দেশে দুর্নীতির বাড়বাড়ন্তের বিষয়ে সরকারের জবাবদিহিতা নিয়ে৷ পাশাপাশি, উঠে আসে তথাকথিত সাম্প্রদায়িক শক্তির সাথে ক্ষমতাসীন দলের সম্পর্কের কথাও৷ উঠে আসে বিভিন্ন ঘটনায় আইনি তৎপরতা ও প্রধানমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়ার প্রসঙ্গ৷

এসএস/এসিবি

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Saudi-Arabien | Bundeskanzler Olaf Scholz und Mohammed bin Salma

জ্বালানির খোঁজে উপসাগরীয় দেশগুলোতে জার্মান চ্যান্সেলর

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান