সমালোচনা সত্ত্বেও করোনা টিকার তৃতীয় ডোজের উদ্যোগ | বিশ্ব | DW | 06.08.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

করোনা

সমালোচনা সত্ত্বেও করোনা টিকার তৃতীয় ডোজের উদ্যোগ

ডাব্লিউএইচও ধনী দেশগুলির করোনা টিকার তৃতীয় ডোজ দেবার সিদ্ধান্তের সমালোচনা করলেও যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ফ্রান্স ও ইসরায়েলের মতো দেশ সেই সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে৷

জার্মানি বয়স্ক ও উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের জন্য করোনা টিকার ব্যবস্থা করছে

জার্মানি বয়স্ক ও উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের জন্য করোনা টিকার ব্যবস্থা করছে

‘চাচা আপন প্রাণ বাঁচা' – আপাতত এই মূলমন্ত্র সম্বল করে ধনী ও শক্তিশালী দেশগুলি নিজস্ব জনসংখ্যার জন্য করোনা টিকার ব্যবস্থা করতে ব্যস্ত৷ দেশের অর্ধেকের বেশি মানুষকে টিকার সব প্রয়োজনীয় ডোজ দিয়ে এমনকি তৃতীয় বুস্টার ডোজের তোড়জোড় চলছে৷ অন্যদিকে উন্নয়নশীল দেশগুলির সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ করোনা টিকার অভাবে নিজেদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারছেন না৷ এমনই প্রেক্ষাপটে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তৃতীয় ডোজে বিলম্বের আবেদন করেছিল৷

সেই ডাকে সাড়া না দিয়ে ফ্রান্স, জার্মানি ও ইসরায়েল বয়স্ক ও উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের জন্য করোনা টিকার ব্যবস্থা করছে৷ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ বলেন, সেপ্টেম্বর মাস থেকেই এই কর্মসূচি শুরু হবে৷ তার সরকার করোনা মহামারির চতুর্থ ঢেউয়ের আগে আরো বেশি মানুষকে টিকা দেবার উদ্যোগ নিচ্ছে৷ আরো কিছু দেশ তৃতীয় ডোজের সিদ্ধান্ত বিবেচনা করছে৷

জার্মানিও একই সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ বার্লিনের শারিটে হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মীদের ইতোমধ্যেই করোনা টিকার তৃতীয় ডোজ দেওয়ার উদ্যোগ শুরু হয়েছে৷ যারা ছয় মাস আগে টিকার দ্বিতীয় ডোজ পেয়েছেন, তাদের জন্য বুধবার থেকে এই সুযোগ দেওয়া হচ্ছে৷ জার্মানির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দেশের ঝুঁকিপূর্ণ মানুষের জন্য তৃতীয় ডোজের সিদ্ধান্তের সপক্ষে বক্তব্য রেখে মনে করিয়ে দিয়েছে যে, জার্মানি দরিদ্র দেশগুলির জন্যও তিন কোটি করোনা টিকা দান করেছে৷ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ইয়েন্স স্পান জার্মানির মানুষের উদ্দেশ্যে করোনা টিকা নেওয়ার আবেদন জানান৷ তিনি এই সিদ্ধান্তকে দেশপ্রেমের পরিচয় হিসেবে বর্ণনা করেছেন৷ রবার্ট কখ ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, দেশের জনসংখ্যার অর্ধেকেরও বেশি টিকার সব ডোজ পেয়ে গেলেও সংক্রমণের বার গত বছরের গ্রীষ্মের তুলনায় আরও দ্রুত বেড়ে চলেছে৷ বর্তমানে প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে সংক্রমণের গড় সাপ্তাহিক হার ২০ পেরিয়ে গেছে৷

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট এক বিবৃতির মাধ্যমে বয়স্ক মানুষদের উদ্দেশ্যে করোনা টিকার তৃতীয় বুস্টার ডোজ নেবার আবেদন জানিয়েছেন৷ সেই বিবৃতি অনুযায়ী ৬০ বছরের বেশি বয়সের মানুষ তৃতীয় ডোজ না নিলে করোনা সংক্রমণের ক্ষেত্রে গুরুতর অসুস্থ হবার আশঙ্কা ছয় গুণ বেড়ে যায়৷ এমনকি তাদের মৃত্যুও হতে পারে৷ বিশেষ করে ডেল্টা ভেরিয়েন্ট মোকাবিলায় তৃতীয় ডোজ জরুরি বলে বেনেট মনে করেন৷ মাত্র ৯৩ লাখ জনসংখ্যার কারণে ইসরায়েলে করোনা টিকার বাড়তি চাহিদা গোটা বিশ্বে টিকার সরবরাহের উপর তেমন কোনো প্রভাব ফেলবে না বলেও দাবি করেন তিনি৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও করোনা টিকার তৃতীয় ডোজের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছে না৷ সে দেশের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ আরো বৈজ্ঞানিক তথ্য সংগ্রহ করে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে চায়৷ তবে যে সব মানুষের প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, তাদের জন্য তৃতীয় ডোজের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না৷ ফাইজার কোম্পানি জানিয়েছে, দ্বিতীয় ডোজের ছয় মাস পর এমন মানুষের শরীরে  অ্যান্টিবডি কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়ে৷

এসবি/এসিবি (রয়টার্স, ডিপিএ)

 

সংশ্লিষ্ট বিষয়