1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
সমাজসেবী সেলিনা আক্তারছবি: Seline Aqtar

‘সুবার্তা’

১৪ ডিসেম্বর ২০১১

বিগত এগারো বছর ধরে বৃদ্ধদের জন্য ‘সুবার্তা’ নামের একটি হোম চালাচ্ছেন বাংলাদেশের সেলিনা আক্তার৷ তাঁর লক্ষ্য, এই সমাজে বৃদ্ধদের জন্য সহমর্মিতার বোধ নির্মাণ করা৷

https://p.dw.com/p/13S4L

সময় বদলাচ্ছে বড্ড দ্রুত৷ সমাজে একদা যে যৌথ পরিবারের একটা রূপরেখা ছিল, যাতে সকলেই প্রয়োজনীয় বোধ করতেন নিজেকে, সেই চেহারাটা আর নেই৷ সকলেই এখন কর্মমুখী৷ বিশেষ করে মহিলারাও উপার্জনের রাস্তা বেছে নিচ্ছেন অনেকেই৷ এই অবস্থায় সবচেয়ে বেশি অবহেলিত হচ্ছেন পরিবারের বৃদ্ধ মানুষজন৷ যাঁদের প্রয়োজন চিকিৎসা, সঙ্গ, সেবা আর নিরাপত্তা৷ সেলিনা আক্তার এই বয়স্ক মানুষদের সেবা করাটাকেই করে নিয়েছেন নিজের জীবনের লক্ষ্য৷

Seline Aqtar
এক বৃদ্ধার সঙ্গে সেলিনা আক্তারছবি: Seline Aqtar

সুবার্তা নামের একটি সংগঠন গড়ে তুলেছেন সেলিনা৷ বিগত এগারো বছর ধরে তিল তিল করে এগিয়েছে তাঁর সংগঠন৷ এখন সেটি একটি ট্রাস্টের অধীনে কর্মরত৷ এই সুবার্তা তৈরি করার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে সেলিনা জানান, সময়ের কারণে একটা সামাজিক পরিবর্তন ঘটে যাচ্ছে৷ বাংলাদেশ থেকে প্রচুর মানুষ এখন বিদেশে কর্মরত৷ ভেঙে যাচ্ছে যৌথ পরিবারগুলি৷ এর ফলে বয়স্ক মানুষরা সমস্যায় পড়ে যাচ্ছেন৷ তাঁদের দেখাশোনা করার কেউ আর থাকছে না৷ আগের তুলনায় মানুষের জীবনসীমা বেড়েছে এখন৷ সময়ের সঙ্গে সঙ্গে রোগব্যাধির প্রকোপও বেড়েছে বই কমেনি৷ কিন্তু এই বয়স্ক মানুষদের সেবা করার, তাঁদের দেখভাল করার, বা তাঁদেরকে নিরাপত্তা দেওয়ার লোক আর আগের মত নেই৷ সমাজে ক্রমবর্দ্ধমান এই সমস্যাই সেলিনাকে টেনে আনে এই কাজের দিকে৷

Seline Aqtar
‘সুবার্তা’ নামের এই হোমটি চালাচ্ছেন সেলিনাছবি: Seline Aqtar

এই কাজে যোগ দিয়ে সেলিনা কিন্তু প্রায় সারাক্ষণই ব্যস্ত থাকেন৷ জানালেন, অনেক সময় এমন হয় যে নিজের খাওয়া ঘুমেরও সময় থাকে না৷ নিজের পরিবারের সঙ্গে এ বিষয়ে বোঝাপড়া করে নিতে পেরেছেন তিনি৷ তারাও জানে, এই নারীকে তাঁর কাজের ক্ষেত্রে ছেড়ে দিতেই হবে৷ কারণ, সেটাই জীবনের লক্ষ্য হিসেবে বেছে নিয়েছেন সেলিনা৷

তরুণ প্রজন্মকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন সেলিনা৷ বয়স্কদের সমস্যার সিংহভাগ অভিযোগ তরুণদের ঘাড়েই গিয়ে পড়ে, এটাও তাঁর অভিজ্ঞতা৷ কিন্তু, এই মহান কাজে তরুণরা এগিয়ে না এলে সেটাকে সফল করা সম্ভব নয় যে তা তিনি জানেন৷ সেলিনা বলছেন, আজ যারা তরুণ, একদিন তো তাদের জীবনেও বার্দ্ধক্য আসবে৷ তাই এখন থেকেই ক্ষেত্র প্রস্তুত করতে হবে বৈকি৷

Seline Aqtar
নিজের অফিস ঘরে সেলিনা...ছবি: Seline Aqtar

সেলিনা আক্তার একজন অন্যরকমের মানুষ৷ নিজের স্বার্থ নয়, তিনি ভাবতে চান বৃহত্তর সমাজের স্বার্থ৷ আর সে কারণেই তিনি ব্যতিক্রমী৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

আরো সংবাদ দেখান
স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়
স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

গতবছর বেসরকারিভাবে হজের খরচ পড়েছিল ৫ লাখ ২২ হাজার ৭৪৪ টাকা। সেই হিসাবে এ বছর খরচ বাড়ছে প্রায় দেড় লাখ টাকা

হজযাত্রীদের মাথায় এবার খরচের আরো বিশাল বোঝা

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ
প্রথম পাতায় যান