সব চেয়ে বড় মাংস সরবরাবহকারীর সার্ভারে সাইবার হামলা | বিশ্ব | DW | 02.06.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অ্যামেরিকা

সব চেয়ে বড় মাংস সরবরাবহকারীর সার্ভারে সাইবার হামলা

বিশ্বের সব চেয়ে বড় মাংস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান জেবিএসে সাইবার হামলা। অ্যামেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, ক্যানাডায় কাজ বন্ধ।

জেবিএস সাময়িকভাবে বন্ধ হওয়ার প্রভাব বাজারে পড়েছে।

জেবিএস সাময়িকভাবে বন্ধ হওয়ার প্রভাব বাজারে পড়েছে।

জেবিএস হলো ব্রাজিলের বহুজাতিক সংস্থা এবং বিশ্বের সব চেয়ে বড় মাংস উৎপাদক ও সরবরাহকারী সংস্থা। সাইবার হামলার পর তাদের অধিকাংশ কারখানা বন্ধ রাখতে হয়েছে। জেবিএস ইউএসএ-র তরফে জানানো হয়েছে, রোববার যে সাইবার-হামলা হয়েছে তা সংগঠিত আক্রমণ। উত্তর অ্যামেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ার আইটি ব্যবস্থাকে সাহায্যকারী সার্ভারের উপর আক্রমণ হয়েছে।  তবে কোম্পানির ব্যাক আপ সার্ভার ঠিক আছে। পুরো ব্যবস্থা আবার ঠিক করার কাজ চলছে। বুধবারের মধ্যে কাজ শুরু হয়ে যাবে বলে তাদের ধারণা। সিইও আন্দ্রে নগুয়েরা জানিয়েছেন, ''এই বিপদের বিরুদ্ধে সর্বশক্তি দিয়ে লড়াই চলবে।''

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসও জানিয়েছে, সম্ভবত রাশিয়ায় অবস্থিত কোনো অপরাধী গোষ্ঠী এই সাইবার হামলা চালিয়েছে। তারা মুক্তিপণ দাবি করেছিল।

এই হামলার পর অস্ট্রেলিয়ায় সোমবার এবং অ্যামেরিকা ও ক্যানাডায় মঙ্গলবার জেবিএস বন্ধ ছিল। এই কোম্পানি অ্যামেরিকার এক চর্তুথাংশ মাংস প্রক্রিয়াকরণ ও সরবরাহ করে। তারাই অ্যামেরিকায় সব চেয়ে বড় গো-মাংস উৎপাদক। তারা প্রতিদিন ২২ হাজার ৫০০ গরু কেটে মাংস প্রক্রিয়াকরণ করে। তারা অ্যামেরিকায় দ্বিতীয় বৃহত্তম মুরগির মাংস বিক্রেতা। পর্কের ক্ষেত্রেও তারা অন্যতম বড় উৎপাদক। ক্যানাডা ও অস্ট্রেলিয়াতেও তারাই সব চেয়ে বড় মাংস উৎপাদক ও প্রক্রিয়াকরণ সংস্থা। 

জেবিএস সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তার প্রভাব বাজারের উপর বিপুলভাবে পড়েছে। পর্কের দাম বেড়ে গেছে। জেবিএস জানিয়েছে, এই ঘটনার প্রভাব মাংস সরবরাহের উপর পড়বে। তবে ব্রাজিলে তাদের অপারেশনে কোনো প্রভাব পড়েনি।

মোট ২০টি দেশে জেবিএসের মাংস প্রক্রিয়াকরণ ইউনিট আছে। তবে তাদের সব চেয়ে বড় ইউনিট অ্যামেরিকায়। এখান থেকেই তাদের অর্ধেক লাভ আসে।

জিএইচ/এসজি(এপি, পিটিআই)