সব কথা আমি খাই না: ড. ইউনূস ও পদ্মা সেতু সম্পর্কে পরিকল্পনামন্ত্রী | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 24.06.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

সব কথা আমি খাই না: ড. ইউনূস ও পদ্মা সেতু সম্পর্কে পরিকল্পনামন্ত্রী

ড. মোহাম্মদ ইউনূস পদ্মা সেতু তৈরিতে বাধা দিয়েছেন, এমন কোনো কথা প্রধানমন্ত্রী বা আওয়ামী লীগ নেতা ছাড়া অন্য কোথাও শুনেছেন কি? এমন প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, ‘না, আমি কোথাও শুনিনি৷''

‘ডয়চে ভেলে খালেদ মুহিউদ্দীন জানতে চায়' টকশোয়ের এবারের আলোচনার বিষয় ছিল পদ্মা সেতু কি দুর্নীতির লজ্জা কাটিয়ে উন্নয়নের গৌরব? পরিকল্পনামন্ত্রী ছাড়াও অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্য মো. হারুনুর রশীদ৷

ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে পদ্মা সেতু তৈরি বানচাল করার চেষ্টা করার অভিযোগ এনেছেন খোদ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ এমন অভিযোগের কোনো সুনির্দিষ্ট প্রমাণ রয়েছে কিনা এই প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, ‘‘আমি ওই লাইনে নই৷ আমি যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে কাজও করি না৷ আমি আমার কাজ করি৷ আপনি ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিজম করতে চাইলে আপনার সে অধিকার রয়েছে৷''

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ছাড়া আর কারো কাছে এই কথা শুনেছেন কিনা, ডয়চে ভেলে বাংলা বিভাগের প্রধান খালেদ মুহিউদ্দীনের এমন প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, ‘‘না, আমি কোথাও শুনিনি৷ পেপারে বিভিন্ন মন্তব্য পড়ি৷ পেপারের মন্তব্য আমি সম্মান করি৷ বাট আমি খাই না৷ সব কিছু আমি খাই না৷ তবে আমি সম্মান করি৷''

নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ হলে টোল কেন নেয়া হচ্ছে­? পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘‘জনগণ টাকা দিয়েছে, সেটা জনগণ ফেরত নিবে৷ জনগণের টাকাটা কত দ্রুত তুলে নিয়ে আসা যায়, সেটি চিন্তা করেই টোল নির্ধারণ করা হয়েছে৷''

পদ্মা সেতু দেশের জন্য বড় অর্জন বলে মনে করেন বিএনপির সংসদ সদস্য মো. হারুনুর রশীদ৷ কিন্তু এই সেতুর উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে সারাদেশে যে নজিরবিহীন কর্মকাণ্ড হচ্ছে, সেটা অনাকাঙ্খিত বলে মনে করেন তিনি৷ হারুন বলেন, ‘‘পার্লামেন্টে আমরা বলেছি, পদ্মা সেতুর উদ্বোধন যেন উৎসবে পরিণত না হয়৷ আজকে আমি পত্রিকায় খবর দেখলাম যে সিলেটসহ এ পর্যন্ত বন্যায় ১০০ জনের বেশি, সিলেট অঞ্চলে ৫০ জনের বেশি মানুষ মারা গিয়েছে৷ এখনও সিলেট অঞ্চলের দুর্গম এলাকায় মানুষ খাদ্য এবং পানির সংকটে ভুগছে৷''

এমন অবস্থায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে কেন্দ্র করে জেলা-উপজেলায় উৎসব আয়োজনকে অনাকাঙ্খিত বলে মনে করেন বিএনপির এই সংসদ সদস্য৷ পাশাপাশি রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে এই উৎসব করার সমালোচনাও করেন তিনি৷

তবে পরিকল্পনামন্ত্রী পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে রাষ্ট্রযন্ত্রকে কাজে লাগানোর অভিযোগ মানতে নারাজ৷ তিনি বলেন, ‘‘জনগণ স্বতস্ফূর্তভাবেই আনন্দ করতে এগিয়ে এসেছে৷ তাদের নিরাপত্তার জন্য সরকারি কর্মকর্তাদের চিঠি পাঠানো হয়েছে, উৎসব পালনে নয়৷''

এডিকে/এআই