সবই এখন হ্যাশট্যাগের খেলা | বিশ্ব | DW | 29.03.2015
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

সবই এখন হ্যাশট্যাগের খেলা

মূলধারার গণমাধ্যম ক্রমশ ছুটতে শুরু করেছে হ্যাশট্যাগের পেছনে৷ যে-কোনো বড় খবরের সঙ্গে হ্যাশট্যাগ থাকা যেন বাধ্যতামূলক৷ সম্প্রতি জার্মানউইংসের বিমান বিধ্বস্তের পরও এই হ্যাশট্যাগের ঝড় দেখা গেছে৷

২৪ মার্চ সকালের কথা৷ দায়িত্ব ছিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শুরু হওয়া বিভিন্ন ট্রেন্ডের দিকে নজর রাখার৷ পাশাপাশি ডয়চে ভেলের ব্যবহারকারীদের চাহিদা অনুযায়ী কন্টেন্ট বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ৷

ইন্টারনেট ট্রেন্ডের দিকে নজর রাখা ঝামেলার কাজ৷ দেখা যায়, এমন একেকটা বিষয় ট্রেন্ড করতে শুরু করে যেগুলোর নিউজ ভ্যালু বলতে গেলে নেই৷ অথচ অসংখ্য মানুষ সেই ট্রেন্ডের দিকে দৌড়াচ্ছে৷ মঙ্গলবার সকালে সেরকম এক ট্রেন্ড দেখছিলাম, ‘#সেলফিসফরনাশ৷' তরুণ অনলাইন সেলিব্রেটি নাশ গ্রেয়ারের জন্য সেলফি তুলে তা টুইটারে প্রকাশ করছিল তার ভক্তরা৷ অবাক হয়ে লক্ষ্য করলাম জার্মানি, ফ্রান্স, ব্রাজিলসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ট্রেন্ড করছে এই হ্যাশট্যাগ৷ চব্বিশ ঘণ্টায় কয়েক লাখ ছবি জমা পড়েছে টুইটার, ইন্সটাগ্রামে৷ সবাই নাশের ভক্ত৷

এমন ট্রেন্ডের আসলে নিউজ ভ্যালু নেই, বিশেষ করে মূলধারার গণমাধ্যমের কাছে৷ ফলে কিছুটা এগিয়ে ক্ষান্ত দিতে হয়৷ তবে নিউজ ভ্যালু আছে এমন টপিক মঙ্গলবার দ্রুতই মিলে যায়৷ ভারতের সুপ্রিম কোর্ট অনলাইনে মত প্রকাশ সংক্রান্ত একটি আইনে পরিবর্তন এনেছে৷ হ্যাশট্যাগ ঘাটতেই দেখা গেল #সেক৬৬এ, #হিউম্যানরাইটস-সহ বিভিন্ন হ্যাশট্যাগে লিখছে মানুষ৷ বিশেষ করে ফেসবুকে তখন বড় ট্রেন্ড এটি৷ পাশাপাশি আফগানিস্তানে চলছিল #জাস্টিসফরফারকুন্দা হ্যাশট্যাগের ঝড়৷ আর ইয়েমেনে #ব্যানচাইল্ডম্যারিজ৷

এসব হ্যাশট্যাগের নিউজ ভ্যালু অনেক৷ তাই সেগুলো নিয়ে কাজ করতে হচ্ছিল৷ আর টুইটারে টুইট করা মানুষের অভাব নেই৷ কিন্তু সমস্যা হচ্ছে, প্রায়ই দেখা যায়, অগুনতি মানুষ একই নিউজ শেয়ার করছে৷ কিন্তু মন্তব্য করে খুব কম মানুষ৷ আরও কম মানুষ কোনো ঘটনার ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে টুইট করে৷ আর যারা ঘটনাস্থলে থেকে টুইট করে তারা হয়ত হ্যাশট্যাগ, বানান নিয়ে সচেতন নয়৷ কিন্তু সেইসব প্রত্যক্ষদর্শীদের প্রকাশ করা ছবি, ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্তদের মন্তব্য আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর কাছে গুরুত্বপূর্ণ৷ তাই এরকম কন্টেন্ট খুঁজে বের করতে বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করতে হয়, সেগুলো ভেরিফাই করতে হয়৷ নিশ্চিত হতে হয়, ছবি, ভিডিও বা মন্তব্যগুলো আসল এবং সেগুলো যারা পোস্ট করছে তারাও আসল৷

DW Bengali Arafatul Islam

আরাফাতুল ইসলাম, ডয়চে ভেলে

যাক সেকথা, হ্যাশট্যাগ নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি, তথ্য নিশ্চিতের মাঝেই ফেসবুক, টুইটারে পোস্ট করতে হচ্ছিল হালনাগাদ বিভিন্ন খবর৷ এসব করতে করতেই হঠাৎ এক টুইট দেখে থমকে যাই৷ ফ্রান্সের দক্ষিণে আল্পসে একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে৷ সহকর্মীদের সেকথা বলতেই পাল্টে যায় রুমের পরিস্থিতি৷ দ্বিতীয় একটি সোর্সে নিউজটি নিশ্চিতও হয়ে যায় মুহূর্তে৷

কিন্তু টুইট করতে গিয়ে মাথায় আসে কি হ্যাশট্যাগ দেবো? ভেবে সময় নষ্ট করার সময় নেই৷ তাই জার্মানউইংসের আগে জুড়ে দেয়া হলো হ্যাশ৷ সিদ্ধান্তটা যে ভুল ছিল না সেটা বুঝতে খুব একটা সময় লাগেনি৷ জার্মানউইংসের বিমান দুর্ঘটনার খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে প্রকাশের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশিবার ব্যবহার করা হয়েছে #জার্মানউইংস৷

তবে বিমান দুর্ঘটনার মতো বড় ঘটনা একটি হ্যাশট্যাগের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে না৷ জার্মানউইংসের ক্ষেত্রেও আরো অনেক হ্যাশট্যাগের ব্যবহার দেখা গেছে, যাচ্ছে৷ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যবহৃত হ্যাশট্যাগটি হচ্ছে বিমানটির ফ্লাইট নম্বর: #4U9525৷ মার্কিন সংবাদমাধ্যমগুলো বিশেষভাবে ব্যবহার করেছে #জার্মানউইংসক্র্যাশ হ্যাশট্যাগ৷ আরো অনেক হ্যাশট্যাগ রয়েছে এই বিমান দুর্ঘটনা নিয়ে৷

হ্যাশট্যাগের এত ব্যবহারের মধ্যে এক ব্যতিক্রম হচ্ছে নিউ ইয়র্ক টাইমস৷ মার্কিন এই সংবাদমাধ্যমটি তাদের টুইটে সচরাচর হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে না৷ অবশ্য তাতে তাদের খুব যে ক্ষতি হয়, তাও না৷ প্রতিষ্ঠানটির মূল টুইটার অ্যাকাউন্টের অনুসারীর সংখ্যা দেড় কোটির বেশি৷ সম্ভবত একারণেই হ্যাশট্যাগ তাদের কাছে মুখ্য নয়৷

আরাফাতুল ইসলাম

জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন