সন্দেহভাজন ছুরি হামলাকারীকে আটক করেছে মিউনিখ পুলিশ | বিশ্ব | DW | 21.10.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

সন্দেহভাজন ছুরি হামলাকারীকে আটক করেছে মিউনিখ পুলিশ

কয়েকজনের উপর ছুরি হামলার দায়ে সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে আটক করেছে মিউনিখ পুলিশ৷ জার্মানির বাভেরিয়া রাজ্যের রাজধানীতে তাকে আটক করতে কয়েকঘণ্টার অভিযান পরিচালনা করে নিরাপত্তা বাহিনী৷

সন্দেহভাজন ঐ ব্যক্তির হামলায় অন্তত চারজন আহত হয়েছেন, তবে তাদের কারো অবস্থাই আশঙ্কাজনক নয় বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ শনিবার সকালে এই হামলার ঘটনার পর সোয়াত টিম কয়েকঘণ্টা অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন ছুরি হামলাকারীকে আটকে সক্ষম হয়৷ তবে পুলিশ এ-ও জানিয়েছে যে, যাকে আটক করা হয়েছে সেই যে সমস্ত হামলার সঙ্গে জড়িত তা তারা শতভাগ নিশ্চিত নয়৷

 

এর আগে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানায়, সন্দেহভাজনকে আটক করতে পুলিশের সর্বশক্তি প্রয়োগ করা হয়েছে৷ অভিযান চালানোর সময় হামলাকারী চল্লিশ বছর বয়সি, সোনালি চুলের অধিকারী এবং বেশ মোটা বলে উল্লেখ করে পুলিশ৷ সে সবুজ জ্যাকেট পরে ঘুরছিল এবং তার পিঠে একটি ব্যাকপ্যাক ছিল৷ ব্যাকপ্যাকের সঙ্গে একটি স্লিপিংব্যাগ আটকানো ছিল৷ এছাড়া সে একটি কালো বাইসাইকেলে চালাচ্ছিল বলেও জানা যায়৷

প্রাথমিকভাবে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, হামলাকারী একা ছিল৷ এবং তার নির্দিষ্ট কোনো লক্ষ্য ছিল না৷ বরং মিউনিখের ছয়টি আলাদা আলাদা স্থানে হঠাৎ করে ছুরি নিয়ে হামলা চালায় সে৷ তার হামলায় চার ব্যক্তি আহত হলেও অন্য দু'জন রক্ষা পান।

এদিকে, সন্দেহভাজন গ্রেপ্তার হলেও রসেনহাইমার প্লাৎস এবং অস্টবানহফ এলাকার মানুষদের সতর্ক থাকতে বলেছে পুলিশ৷ শহরের বিভিন্ন স্থানে পুলিশের সাইরেনের শব্দ শোনা গেছে বলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে জানিয়েছেন অনেকে৷

সন্দেহভাজন হামলাকারী সম্পর্কে বিস্তারিত এখনো জানা যায়নি৷ এননকি এটি সন্ত্রাসী হামলা কিনা, তাও জানাতে পারেনি পুলিশ৷

উল্লেখ্য, গতবছর মিউনিখে এক ইরানি বংশোদ্ভূত জার্মান তরুণ গুলি করে কয়েকজনকে হত্যা করে৷ সেসময় হামলাকারী নিজেকে একজন জার্মান এবং 'আরিয়ান' হিসেবে দাবি করে৷ তার লক্ষ্য ছিল তুর্কি এবং আলবেনীয় বংশোদ্ভূত তরুণদের হত্যা করা৷

এআই/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন