1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
ছবি: picture-alliance/AP Photo

সন্ত্রাস দমন জোট

১৫ ডিসেম্বর ২০১৫

উগ্র ইসলামপন্থি ওয়াহাবি ভাবাদর্শ রপ্তানির অভিযোগের মুখে সৌদি আরব এবার প্রধানত মুসলিম দেশগুলির এক সামরিক জোট গঠন করেছে৷ পারস্য উপসাগরীয় এলাকা ছাড়াও এশিয়া ও আফ্রিকার কয়েকটি দেশও তাতে যোগ দিয়েছে৷

https://p.dw.com/p/1HNVm

Obama warns 'IS' leaders: 'You are next'

একদিকে বাংলাদেশ, পাকিস্তান, মালয়েশিয়ার মতো এশিয়ার দেশ, অন্যদিকে আফ্রিকার লিবিয়া, মালি, চাড ও সোমালিয়ার মতো সংকটে জর্জরিত দেশও সৌদি নেতৃত্বে সামরিক জোটে যোগ দিয়েছে৷ উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলি তো রয়েছেই৷ মোট ৩৪টি দেশ এই জোটে যোগ দিয়েছে৷

তবে শিয়া-প্রধান ইরান ও ইরাককে তাতে আমন্ত্রণ জানানো হয় নি, যদিও তথাকথিত ইসলামিক স্টেট-এর বিরুদ্ধে সংগ্রামে তারা বড় ভূমিকা পালন করছে৷

উগ্র ইসলামপন্থি ওয়াহাবি ভাবাদর্শ ও দেশের মধ্যেই চরম শাস্তির বিধানের কারণে গোটা বিশ্বে সৌদি আরবের নিজস্ব ভাবমূর্তি মোটেই অনুকূল নয়৷ সে দেশকে সন্ত্রাসের আঁতুড়ঘর বলে মনে করছে অনেক মহল৷ তাই এমন এক দেশের নেতৃত্ব নিয়ে ব্যঙ্গাত্মক প্রতিক্রিয়াও দেখা যাচ্ছে৷

অনেক সৌদি নাগরিক সন্ত্রাসবাদের অর্থায়ন চালিয়ে যাচ্ছে বলে বার বার অভিযোগ উঠছে৷ তাই সবার আগে সেই প্রবণতা থামানোই জরুরি বলে মনে করেন আদেল এলসায়েদ স্পার৷

যে রাষ্ট্র নাস্তিকতাকে সন্ত্রাসবাদের সমান হিসেবে দেখে, সে দেশের নেতৃত্বে সন্ত্রাস দমন জোট সম্পর্কে বিস্ময় প্রকাশ করছেন অনেকে৷

সংকলন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়
স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

স্ট্রিমিং সার্ভিসে বিশ্বকাপ দেখছেন লেবাননের এক ব্যক্তি

অর্থ সংকটের কারণে বিশ্বকাপ দেখাচ্ছে না লেবাননের রাষ্ট্রীয় টিভি

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান