সন্ত্রাসবাদে যুক্ত ছিল কী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রাজীব | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 30.11.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

সন্ত্রাসবাদে যুক্ত ছিল কী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রাজীব

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ রাজীব করিম ‘আত্মঘাতি বোমারু’ হতে চেয়েছিল৷ এরকম একাধিক অভিযোগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে আটক করা হয় তাকে৷ সোমবার অবশ্য নিজের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছে রাজীব৷

default

প্রতীকী ছবি

ব্রিটেনের দ্য ডেইলি স্টার জানিয়েছে, ২০০৬ সাল থেকেই ইসলামি জঙ্গিদের সঙ্গে নীরবে কাজ করছিল সে৷ এই সময়ের মধ্যে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্যও জঙ্গিদেরকে সরবরাহের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে৷ বিশেষ করে কীভাবে বিমানবন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা এড়ানো যায়, স্ক্যানিং এর বিভিন্ন দুর্বলতা আর বিমানে পরিবহণের উপযোগী তরল সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য পাচার করেছে রাজীব৷

এই বছরের শুরুর দিকে ব্রিটিশ এয়ারওয়েজে ধর্মঘট চলাকালে বিমানের অভ্যন্তরে কাজ করার অনুমতিও চেয়েছিল রাজীব৷ কিন্তু বিএ কর্তৃপক্ষ তাকে সেই অনুমতি দেয়নি৷

৩১ বছর বয়সি বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত এই তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ পাকিস্তান অথবা ইয়েমেনে সন্ত্রাসী প্রশিক্ষণ নিতে আগ্রহী ছিল, এমন অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে৷ দ্যা প্রেস এসোসিয়েশন জানায়, রাজীবের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদের জন্য অর্থ সংগ্রহের অভিযোগও আনা হয়েছে৷

এদিকে, সোমবার ভিডিও লিংকের মাধ্যমে রাজীব তার বিরুদ্ধে আনা যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে৷ আপাতত অবশ্য তাকে আটকে রাখার সিদ্ধান্তই বহাল রেখেছে ব্রিটিশ আদালত৷ আগামী বছরের জানুয়ারীতে লন্ডনের দক্ষিণপূর্বে অবস্থিত ওয়েলিস ক্রাউন কোর্টে হাজির করা হবে রাজীবকে৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন