সন্ত্রাসবাদে উসকানির অভিযোগে তুরস্কে ১৭ সাংবাদিকের জেল | বিশ্ব | DW | 26.04.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

তুরস্ক

সন্ত্রাসবাদে উসকানির অভিযোগে তুরস্কে ১৭ সাংবাদিকের জেল

জুমহুরিয়েত পত্রিকার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ হলো যে তারা নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কাস পার্টি, কট্টর বামপন্থি দল পিপলস লিবারেশন পার্টি এবং গুলেন পার্টির প্রচারণায় বারংবার অংশ নিয়ে গেছে৷

‘সন্ত্রাসবাদী' দলগুলোকে সমর্থন ও উসকানির অভিযোগে তুরস্কের একটি পত্রিকার ১৪ জন সাংবাদিককে কারাগারে পাঠানোর রায় দিয়েছে দেশটির একটি আদালত৷

বুধবার তুরস্কের সরকারবিরোধী দৈনিক পত্রিকা জুমহুরিয়েত-এর সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ঐ রায় দেওয়া হয়৷

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল এবং রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডারের মতো মানবাধিকার ও সাংবাদিক অধিকার নিয়ে কাজ করা সংস্থাগুলো এ ঘটনার প্রতিবাদ করে বলেছে, এটি তুরস্কের মুক্ত সাংবাদিকতার প্রতি বড় আঘাতের শঙ্কা তৈরি করেছে৷

    জুমহুরিয়েত পত্রিকার সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ হলো – তারা নিষিদ্ধ ঘোষিত কুর্দিস্তান ওয়ার্কাস পার্টি, কট্টর বামপন্থি দল পিপলস লিবারেশন পার্টি এবং গুলেন পার্টির ক্রমাগতভাবে প্রচারণায় অংশ নিয়ে গেছে৷

২০১৬ সালে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়েপ এর্দোয়ানের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানে ক্রমাগত উসকানি দেওয়ার অভিযোগও রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে৷

এর্দোয়ান সরকারের কট্টর সমালোচক জুমহুরিয়েত-এর জন্ম ১৯২৪ সালে, আধুনিক তুরস্কের জন্মের ঠিক এক বছর পর৷ জুমহুরিয়েত-এর অর্থ করলে দাঁড়ায় ‘বিদ্রোহ'৷

সরকারের বিরুদ্ধে উসকানিমূলক খবর ছাপানোর অভিযোগে জুমহুরিয়েত পত্রিকার মালিক ও সাংবাদিকসহ মোট ১৭ জন বিরুদ্ধে মামলা হয়েছিল৷ এর মধ্যে তিনজন বেকসুর খালাস পান৷

রায়ে জুমহুরিয়েত পত্রিকার চেয়ারম্যান আকিন আটালের আট বছর দেড় মাসের জেল হয়েছে৷ তবে আপিল করলে তিনি ছাড়া পাবেন বলে জানানো হয়েছে৷ আকিন এই মামলায় অভিযুক্তদের মধ্যে একমাত্র, যিনি বিচারের সময় কারাগারে ছিলেন৷

পত্রিকার প্রধান সম্পাদক মুরাদ সাবুনসু এবং তুরস্কের খ্যাতনামা সাংবাদিক আহমেত সিককে সাড়ে সাত বছর জেল খাটার রায় দেওয়া হয়েছে৷

এছাড়া বাকি ১১ জন সাংবাদিকের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা হয়েছে৷ ২০১৬ সালে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর এর্দোয়ান সরকার এ পর্যন্ত তুরস্কের বেশ কিছু বিরোধী মতাদর্শের সংবাদমাধ্যম বন্ধ ও সাংবাদিকদের গ্রেপ্তার করেছে৷

এইচআই/ডিজি (ডিপিএ/এএফপি/রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন